সবার আগে দল পেলেন মুশফিক

প্রজন্ম ডেস্ক  

বিপিএলের গত আসরে এক মুশফিকুর রহিম ছাড়া বাকি সিনিয়র ক্রিকেটারদের ড্রাফটের আগেই ডেকে নিয়েছিল দলগুলো। এবারের আসরে এই ডানহাতি ব্যাটসম্যানই দল পেলেন সবার আগে।

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফটে প্রথম ডাকের সুযোগ পেয়ে মুশফিককে দলে টানে প্রিমিয়ার ব্যাংক খুলনা টাইগার্স। প্রথম সেটের দুই রাউন্ডে দল পাননি বিপিএলের সফলতম অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

গতবার প্লেয়ার্স ড্রাফটের আগে মুশফিকের অবিক্রীত থেকে যাওয়াটা ছিল অবাক করার মতো। পরে ড্রাফট থেকে তাকে দলে টেনেছিল চিটাগং ভাইকিংস। সেই টুর্নামেন্টে ১৩ ইনিংসে ৩৫.৫ গড়ে টুর্নামেন্টের তৃতীয় সর্বোচ্চ ৪২৬ রান করেছিলেন অভিজ্ঞ এই কিপার-ব্যাটসম্যান।

রোববার সন্ধ্যায় ড্রাফটে দ্বিতীয় ডাকে যমুনা ব্যাংক ঢাকা প্লাটুন দলে নেয় দেশের সফলতম ব্যাটসম্যান তামিম ইকবালকে। তৃতীয় ডাকে লিটন দাসকে দলে টেনেছে রাজশাহী রয়্যালস।

জাতীয় দলের আরেক সিনিয়র ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহর নতুন ঠিকানা চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। নিজেদের প্রথম ডাকে রংপুর রেঞ্জার্স দলে টেনেছে পেসার মুস্তাফিজুর রহমানকে।

ওপেনিং ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকারকে দলে নিয়েছে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। আর সিলেট থান্ডার নিজেদের প্রথম সুযোগে দলে ভিড়িয়েছে মোসাদ্দেক হোসেনকে।

দ্বিতীয় সুযোগে সিলেট দলে নেয় কিপার-ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুনকে। পরবর্তী ডাকে কুমিল্লা নিয়েছে পেসার আল-আমিন হোসেনকে।

ভারত সফরের টি-টোয়েন্টি সিরিজে চমৎকার পারফর্ম করা তরুণ ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ নাইম শেখকে নিজেদের দ্বিতীয় ডাকে দলে নেয় রংপুর রেঞ্জার্স। দ্বিতীয় ডাকে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স দলে নিয়েছে ইমরুল কায়েসকে।

অলরাউন্ডার আফিফ হোসেনকে দ্বিতীয় সুযোগে দলে ভিড়িয়েছে রাজশাহী রয়্যালস। ঢাকা প্লাটুন এরপর নেয় এনামুল হক বিজয়কে। আর প্রথম সেটের সবশেষ ডাকে খুলনা দলে টেনেছে পেসার শফিউল ইসলামকে।

মন্তব্য