বাবার মৃত্যুর ৭ দিনের মাথায় বাস চাপায় প্রাণ গেল ছেলেরও

প্রজন্ম ডেস্ক

ঢাকার ধামরাই উপজেলায় বাবার মৃত্যুর সাত দিনের মাথায় বেপরোয়া নিলাচল বাসচাপায় প্রাণ গেল ছেলেরও। নিহতের নাম ইমরান হোসেন।রোববার দুপুরে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের উপজেলার গাজীখালী নদীর ব্রিজের পশ্চিম পাশে শ্রীরামপুর বাসস্ট্যান্ডে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত স্কুলছাত্র ইমরান হোসেন শ্রীরামপুর মধ্যপাড়া মহল্লার বাসিন্দা মৃত মতিউর রহমানের ছেলে। জানা যায়, মাত্র সাত দিন আগে গত রোববার একই স্থানে রাস্তা পারাপারের সময় দুর্ঘটনায় বাবা মতিউর রহমান(৫২) মারা যান। পরিবারটি শোকের সাগরে ভাসছিল।

আজ দুপুরে মায়ের জন্য বাজার থেকে সদাই নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে শ্রীরামপুর বাসস্ট্যান্ডে বেপরোয়া নিলাচল বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে মারা মারা যায় ওই স্কুলছাত্র।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রোববার দুপুর ১২টার দিকে স্কুলছাত্র মো. ইমরান হোসেন মায়ের জন্য শ্রীরামপুর বাজারে সদাই আনতে যায়। বাজার থেকে সদাই করে বাড়ি ফেরার পথে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের গাজীখালী নদীর ব্রিজের পশ্চিম পাশে বেপরোয়া গতিসম্পন্ন নিলাচল বাস ফুটপাতের ওপর তাকে চাপা দেয়।

এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। হাইওয়ে থানা পুলিশ ওই বাসটির পিছু নিয়ে বাসটি আটক করে গোলড়া হাইওয়ে থানায় নিয়ে যায় বলে জানা গেছে।

প্রতিবেশীরা জানান, মাত্র সাত দিন আগে একই স্থানে রাস্তা পারাপারের সময় সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মারা যান ওই স্কুলছাত্রের বাবা মতিউর রহমান। সাত দিনের মাথায় একইভাবে মারা গেল ছেলে ইমরান হোসেন।

ফলে গভীর শোকের মাতম বইছে পরিবারের সদস্যদের মাঝে। স্বামীর পর ছেলে হারানোর বুকফাঁ’টা আ’হাজারি মায়ের।তিনি বলেন, আমি এখন কি নিয়ে বাঁচব। এ শোক কি করে সইব আমি! মাঝেমধ্যেই সংজ্ঞা হারিয়ে ফেলছেন তিনি। তাকে সান্ত্বনা দেয়ার ভাষা নেই কারও।

মন্তব্য