শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণা, দুই শিক্ষক বরখাস্ত

প্রজন্ম ডেস্ক

ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলার হরিরামপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণা করা সেই দুই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়াও তাদেরকে সাতদিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে।

বিদ্যালয়ের এসএসসির শিক্ষার্থীদের সার্টিফিকেট, রেজিস্ট্রেশন কার্ড ও নম্বরপত্র জালিয়াতি করে এসএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র না দেয়ায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. লুৎফর রহমান ও আইসিটি শিক্ষক মো. সোহেল রানাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কে এম ওবায়দুল বারী দিপু খান জানান, ওই দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে এসএসসি পরীক্ষা দিতে না পারা সাত শিক্ষার্থীর অভিযোগের ভিত্তিতে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক তাদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এছাড়াও কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। তাতে ৭ দিনের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে। সহকারী প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ কামাল হেসেনকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এ বিষষে কথা বলতে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. লুৎফর রহমান ও আইসিটি শিক্ষক মো. সোহেল রানার সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাদের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

হরিরামপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এ বছর ৪৪ জন শিক্ষার্থীর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার কথা ছিল। এর মধ্যে ৩৭ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করছে। কিন্তু ওই দুই শিক্ষকের প্রতারণা ও জালিয়াতির কারণে সাত শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি।

এদিকে গত রোববার (২ ফেব্রুয়ারি) ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের বিচার দাবি করে বিক্ষাভ-সমাবেশ করেন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

সমাবেশ শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেসমিন সুলতানার কাছে দোষী শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের বিচার দাবি করে স্মারকলিপি দেয় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা।

মন্তব্য