আর নানা বাড়ি বেড়াতে যাওয়া হলো না শিশুটির

প্রজন্ম ডেস্ক

মায়ের সঙ্গে মাহিন্দ্রাযোগে নানা বাড়ি বেড়াতে যাওয়ার জন্য কুয়াকাটা থেকে রওয়ানা হয়েছিল শিশু শিক্ষার্থী রাখাইন এসো।

মাহিন্দ্রার মধ্যে মায়ের কোলে মাকে ঝাপটে ধরে বসেছিল সে। কিন্তু মা অনেক চেষ্টা করেও শিশুটিকে আগলে রাখতে পারেননি। বিআরটিসি বাসের ধাক্কায় শিশুটি মায়ের কোল থেকে ছিটকে নিচে পড়ে যায়। কথাগুলো বলছিলেন আর অঝোরে কাঁদছিলেন শিশুর মা ইমেন হাওলাদার।

বুধবার সকাল ৮টার দিকে পটুয়াখালীর কলাপাড়া-কুয়াকাটা মহাসড়কের ইউসুফপুর মহিলা মাদ্রাসার সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয়রা শিশুটিকে উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক এসোকে (৮) মৃত ঘোষণা করে। এসময় আহত হন ওই শিশুর মা ও তার ফুফু মায়ে (২৮)।

নিহত এসো আলীপুর হাতিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী ও কালাচান পাড়া রাখাইন পল্লীর উবাচুর সন্তান।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা যায়, কুয়াকাটা থেকে কলাপাড়া আসার পথে দ্রুত গতির এক বিআরটিসি বাস (ঢাকা মোট্রে ব-১১-১২৪৪) মাহিন্দ্রাটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এসময় শিশু এসো ছিটকে সড়কে পড়ে যায়। 

এদিকে শিশু শিক্ষার্থী এসো নিহতের ঘটনায় স্বজনদের আহাজারিতে ভারী হয়ে ওঠে রাখাইন পল্লীর পরিবেশ। সবার প্রিয় এসোকে এক নজর দেখতে তার বাড়িতে ভিড় জমিয়েছেন সহপাঠীসহ স্কুলের শিক্ষকরা।

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরিুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় পরিবহনের চালক পালিয়ে গেলেও ঘাতক বাসকে আটক করা হয়েছে। শিশুটির মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মন্তব্য