সরকারকে রাজধর্ম শেখাবেন না সোনিয়াকে বিজেপি

প্রজন্ম ডেস্ক

দিল্লিতে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা হামলার বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের ধর্মভিত্তিক রাজনীতির সমালোচনা করেছেন দেশটির বিরোধী দলের অন্তর্বর্তীকালীন সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী।

তবে বিরোধী দলীয় নেত্রীর সমালোচনার জবাব দিয়েছেন কেন্দ্রীয় আইন মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ। কংগ্রেস সভাপতির মন্তব্যের পালটা আক্রমণে বিজেপির এ মন্ত্রী সরকারকে রাজধর্ম না শেখানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সোনিয়া গান্ধী বিবৃতি দিলে শুক্রবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) তাকে পাল্টা আক্রমণ করেন বিজেপির এ নেতা।

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘যেখানে কংগ্রেসের রেকর্ড নিয়েই প্রশ্ন রয়েছে, সেখানে বিরোধী দলের নেত্রীর কোনো প্রয়োজন নেই কেন্দ্রীয় সরকারকে তার কর্তব্য সম্পর্কে জ্ঞান দেয়ার। শ্রীমতি সনিয়া গান্ধি দয়া করে আমাদের রাজধর্ম শেখাবেন না। দ্রুত বিক্ষোভ ছড়ানো, ভোটের রাজনীতির জন্য নীতি পাল্টানোর ক্ষেত্রে আপনাদের রেকর্ড রয়েছে।’

এদিকে বিজেপির সিনিয়র নেতা কপিল মিশ্রারও সমালোচনা করেছেন প্রসাদ। তিনি বলেন, ‘কপিল মিশ্রার বক্তব্যে দাঙ্গাকে আরও উসকানি দিয়েছে। দল (বিজেপি) স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে এমন বক্তব্য গ্রহণ করবে না। এখন সময় একসঙ্গে শান্তি, ঐক্যের কথা বলার। তাই সিনিয়র নেতারা মিশ্রার এ বক্তব্যের নিন্দা জানিয়েছে।

মূলত, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দলীয় প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠকের পর সোনিয়া গান্ধি বৃহস্পতিবার বলেন, ‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে তার দায়িত্বে গাফিলতির জন্য সরিয়ে দেয়া হোক। দিল্লির দাঙ্গার ‘নীরব দর্শক’ দিল্লির অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকার এবং কেন্দ্রীয় সরকার।’

কংগ্রেস তাদের স্মারক লিপিতে লেখে, ‘আপনাকে (রাষ্ট্রপতি) দেশের সংবিধানের সর্বোচ্চ সম্ভাব্য দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। আপনিই সরকারের বিবেক রক্ষক হিসেবে এবং তাদের সাংবিধান‌িক দায়িত্ব মনে করিয়ে দেয়ার জন্য রাজধর্মের মূল স্তম্ভ। আপনার কথা সব সরকারকেই মানতে হবে।’

মন্তব্য