আদালত চত্বরে হাতকড়া খুলে পলালো আসামি

প্রজন্ম ডেস্ক

কাশিমপুর কারাগার আদালতে হাজিরা দিতে নেওয়ার পথে অস্ত্র মামলার এক আসামি হাতকড়া খুলে পালিয়ে গেছে।

হাজিরা দিতে কাশিমপুর কারাগার থেকে সোমবার সকালে অস্ত্র মামলার এক আসামি আদালতে নেওয়ার সময় হাতকড়া খুলে পালিয়ে গেছে।

পলাতক আসামি শাহিন আলম সবুজ (৩৫) কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া থানার টেকিপাড়ার আব্দুস সালামের ছেলে। পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে গাজীপুরে অভিযান চালিয়েছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন আদালতের পরিদর্শক আতিকুর রহমান জানান, হাজিরা দিতে সোমবার সকালে একটি প্রিজনভ্যানে করে কাশিমপুর কারাগার থেকে ২৩ জন এবং জেলা কারাগার থেকে ২৭ জনসহ মোট ৫০ জন আসামি আদালতে নিচ্ছিল পুলিশ।

“ভ্যান থেকে হাতকড়া পরা অবস্থায় ভ্যান থেকে নামিয়ে হাজতে নেওয়ার পথে ভিড়ের মধ্যে কৌশলে সবুজ হাতকড়া খুলে পালিয়ে যায়।”

হাজতে নেওয়ার পর গুণতে গেলে  এক আসামি পাওয়া যায়। খোঁজ নিয়ে দেখা যায় আসামিদের মধ্যে সবুজ নাই বলে জানান তিনি।

সবুজকে খুঁজে বের করতে পুলিশ এলাকায় অভিযান শুরু করেছে। তবে সোমবার দুপুর ৩টা পর্যন্ত তার সন্ধান পায়নি পুলিশ।

এ ব্যাপারে গাজীপুর সদর থানায় আসামি পলানোর একটি মামলা করা হয়েছে।

জয়দেবপুর থানায় ২০০৯ সালের অস্ত্র আইনের চ ধারার গ্রেপ্তার একটি মামলায় সোমবার কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে আদালতে হাজিরা দিতে নেওয়া হচ্ছিল। তার বিরুদ্ধে লাকসাম রেলওয়ে থানায় ২০১১সালে বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলাসহ ২০১৫সালে রেলওয়ে থানার আরো একটি মামলা রয়েছে।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২-এর জেলার বাহারুল আলম জানান, সবুজ গত বছরের ২২ অক্টোবর গাজীপুর জেলা কারাগার থেকে কাশিমপুর কারাগারে স্থানান্তরিত করা হয়। সোমবার সকালে সবুজসহ তার আদালত থেকে বিভিন্ন মামলার ২৩ জন আসামি হাজিরা দিতে প্রিজনভ্যানে করে গাজীপুর মেট্রোপলিটন আদালতে পাঠানো হয়।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মো. আনোয়ার হোসেন জানান, ঘটনা তদন্তে অ্যাসিস্টেন্ট কমিশনার (প্রসিকিউশন) আহসান হাবীবকে দায়িত্ব দিয়ে এক সদস্যের কমিটি করা হয়েছে। প্রতিবেদন দিতে তাকে সাত কর্মদিবস সময় দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য