ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে ২ টাকার মাস্ক ৪০ টাকায় বিক্রি করল লাজ ফার্মা

প্রজন্ম ডেস্ক

সাভারে অতিরিক্ত দামে মাস্ক বিক্রির অভিযোগে লাজ ফার্মা লিমিটেডে অভিযান চালিয়ে দুই বিক্রয়কর্মীকে আটক করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সঙ্গে লাজ ফার্মাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) দুপুরে ক্রেতা সেজে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট মাস্ক কিনতে গেলে বাড়তি চাহিদার কথা বলে তার কাছে দুই টাকা মূল্যের মাস্ক ৪০ টাকা রাখেন লাজ ফার্মার বিক্রয়কর্মীরা।

এ সময় ম্যাজিস্ট্রেট বিক্রয় রসিদ চাইলে তা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন ফার্মেসির কর্মকর্তা। পরে ব্যবস্থাপক মতিউর রহমান ও বিক্রয়কর্মী পাপন দেবনাথকে আটক করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় প্রভাবশালীদের নাম ভাঙিয়ে সময়ক্ষেপণের অভিযোগে লাজ ফার্মার ম্যানেজিং পার্টনার আলমগীর হোসেন মাখনকে আটক করা হয়। পরে মুচলেকার বিনিময়ে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে সাভার থানা রোডের সবগুলো ফার্মেসিতে অভিযান চালানো হয়। করোনাভাইরাস আতঙ্কে সাভারের ফার্মেসিগুলোতে উচ্চমূল্যে মাস্ক বিক্রির সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়।

তিনি বলেন, লাজ ফার্মা লিমিটেডে দুই টাকা মূল্যের মাস্ক বিক্রি করা হচ্ছিল ৪০ টাকায়। তারা কোথা থেকে কত টাকায় এই মাস্ক সংগ্রহ করেছে তা দেখাতে পারেনি, এমনকি আমাকেও বিক্রয় রসিদ দেননি। পরে তাদের দুজনকে আটক করা হয়। একই সঙ্গে দোকানে অননুমোদিত অসংখ্য প্রসাধনী সামগ্রী পাওয়ায় জব্দ করা হয়। এসব কারণে তাদের এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

মন্তব্য