করোনা : পথচারীদের হাত ধোয়াচ্ছে শাইন স্যানিটারি

প্রজন্ম ডেস্ক

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে পথচারীদের হাত ধোয়ার কর্মসূচি শুরু করেছে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় বহুজাতিক শিল্পপ্রতিষ্ঠান প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের শাইন স্যানিটারি ওয়ার ও ফিটিংস। মঙ্গলবার রাজধানীর নতুন বাজার এলাকা থেকে তাদের এই জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম শুরু করা হয়।

শাইন স্যানিটারি ওয়ার ও ফিটিংসের ডেপুটি ব্র্যান্ড ম্যানেজার ছাকিবুল শাহীন বলেন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আমাদের এই কর্মসূচি। আমরা সাধারণ পথচারীদের এ বিষয়ে সচেতন করতে পথচলার মাঝে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রেখেছি। হাত ধোয়ানোর জন্য আমাদের বিশেষ গাড়িতে সকল ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। পথচারীরা পথচলার সময় আমাদের এখানে হাত ধুয়ে নিচ্ছেন, পাশাপাশি আমরা তাদের মাঝে করোনা প্রতিরোধে সচেতনতা সৃষ্টি করতে কাজ করছি।

তিনি আরও বলেন, আমরা পুরো মাসব্যাপী ঢাকা শহরের ব্যস্ততম এলাকায় যাব এবং সাধারণ পথচারীদের হাত ধুতে উদ্বুদ্ধ করব। আমারা প্রায় ৬০ হাজার মানুষকে হাত ধোয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছি। ‘করোনাভাইরাস হবে প্রতিরোধ, যদি জাগে সচেতন বোধ’ এই স্লোগান নিয়ে আমরা পথচারীদের হাত ধোয়ানোর পাশাপাশি লিফলেটও বিতরণ করছি।

কর্মসূচি সংশ্লিষ্ট ইভেন্টের ম্যানেজার আকরামূল হক বলেন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে হাত ধোয়ার এই কর্মসূচিতে সাধারণ পথচারীরা ব্যাপকভাবে সাড়া দিচ্ছেন। আমরা এই টিমে মোট ১১ জন কাজ করছি। মাসব্যাপী প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলবে।

রাজধানীর নতুন বাজার এলাকায় অস্থায়ীভাবে স্থাপন করা শাইন স্যানিটারি ওয়ার ও ফিটিংসের গাড়িতে নিজের হাত ধুয়ে নিলেন বেসরকারি চাকরিজীবী নাইমুল ইসলাম সোহান। তিনি বলেন, দেশজুড়ে করোনা আতঙ্ক। আমরা সবাই ভীত অবস্থায় আছি, কিন্তু পেশাগত কারণে বা মার্কেটিংয়ে চাকরির কারণে আমাদের প্রতিদিনই বাইরে বের হতে হয়। যে কারণে সবসময় হাত ধোয়া সম্ভব হয় না। কিন্তু প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের শাইন স্যানিটারি ওয়ার ও ফিটিংস পথচারীদের জন্য এই আতঙ্কের সময়ে যে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করেছে তা আসলেই প্রশংসার দাবিদার। আমরা যারা সচেতন থাকতে চাই তারাও রাস্তাঘাটে সবসময় হাত ধুতে পারি না। তাদের এমন মহৎ উদ্যোগের জন্য আমাদের সাধারণ মানুষ দারুণভাবে উপকৃত হয়েছি।

দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পপ্রতিষ্ঠান প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের শাইন স্যানিটারি ওয়ার ও ফিটিংসের পক্ষ থেকে এ সময় সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে লিফলেট বিতরণ করা হয়। লিফলেট তারা উল্লেখ করেছেন, বাইর থেকে এসে অন্তত ২০ সেকেন্ড হাত ধুয়ে নিন, হ্যান্ডশেক করা থেকে বিরত থাকুন, হাত জীবাণুমুক্ত রাখুন, টিস্যু বা রুমালে অথবা কনুইয়ের ভাঁজে হাঁচি-কাশি দিন, যেখানে সেখানে থুতু ফেলবেন না, অপরিচ্ছন্ন হাতে নাক-মুখ ও চোখ স্পর্শ করবেন না, জ্বর-কাশি এবং শ্বাসকষ্ট আক্রান্তদের থেকে কমপক্ষে তিন ফুট দূরত্ব বজায় রাখুন, জনসমাগম ও অপ্রয়োজনে ভ্রমণ এড়িয়ে চলুন।

মন্তব্য