রাসিকের নির্বাহী প্রকৌশলীই খুবির প্রধান প্রকৌশলী!

প্রজন্ম ডেস্ক

নিয়ম ভেঙে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি) চাকরি করেছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী (পরিকল্পনা) গোলাম মুর্শেদ। প্রধান প্রকৌশলী হিসেবে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে দায়িত্ব পালন করেছেন এক মাস ২২ দিন। ওই সময় নিজেকে রাসিক দপ্তরে হাজির দেখিয়ে নিয়েছেন সকল সুযোগ-সুবিধা।

নির্বাহী প্রকৌশলী গোলাম মুর্শেদ বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, আমি খুলনায় যোগ দিয়েছিলাম। কিন্তু সেখান থেকে কোনো বেতন-ভাতা নেইনি। পরে সিটি করপোরেশন ছাড়পত্র না দেয়ায় আমি সেখান থেকে চলে এসেছি।

রাজশাহী সিটি করপোরেশন সূত্র জানায়, মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল মেয়র থাকাকালীন গোলাম মুর্শেদ ছিলেন অঘোষিত প্রধান প্রকৌশলী। নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করেই তিনি খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ দেন প্রধান প্রকৌশলী হিসেবে। এজন্য রাজশাহী সিটি করপোরেশন থেকে তিনি কোনো ছাড়পত্র নেননি।

জানা যায়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রকৌশলীদের কার্যকালের তালিকায় গোলাম মুর্শেদের নাম আছে ১৩ নম্বরে। ২০১৭ সালের ২ মার্চ থেকে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত এক মাস ২২ দিন সেখানে কর্মরত ছিলেন তিনি।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফায়েক উজ্জামান জানান, গোলাম মুর্শেদ একমাসের বেশি সময় সেখানে প্রধান প্রকৌশলীর দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে তিনি বেতন-ভাতা নিয়েছেন কি না সেটি তার জানা নেই। রাসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী গোলাম মুর্শেদ আর তার ওখানে চাকরি করা গোলাম মুর্শেদ একই ব্যক্তি বলে নিশ্চিত করেন উপাচার্য।

এ বিষয়ে রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম শরিফ উদ্দিন জানান, এ বিষয়টি তার জানা নেই। তিনি খোঁজ নিয়ে দেখবেন, খুলনায় যেতে ওই প্রকৌশলী কোনো অনুমতি নিয়েছিলেন কি না?

সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সাবেক কো-অর্ডিনেটর সুব্রত পাল জাগো নিউজকে বলেন, একই ব্যক্তি দুই জায়গায় চাকরি করতে পারেন না। এটি ফৌজদারি অপরাধ। দুদকের উচিত ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান করে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া।

মন্তব্য