দুই চোখ উপড়ানো লাশের মুখে স্কচটেপ, হাত-পা বাঁধা

প্রজন্ম ডেস্ক

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় মুখে স্কচটেপ পেঁচানো, দুই চোখ উপড়ানো ও হাত-পা বাঁধা অবস্থায় এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকালে উপজেলার ব্রাহ্মন্দী ইউনিয়নের মারুয়াদি এলাকার আড়াইহাজার-মদনপুর সড়কের পাশ থেকে এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত ব্যক্তির নাম জামান হোসেন (৪৬)। তিনি অটোরিকশা চালক। অটোরিকশা ছিনিয়ে নেয়ার পর তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা পুলিশের। মরদেহ উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে মর্গে পাঠায় পুলিশ।

নিহত জামান হোসেন উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের বগাদি গ্রামের শফি উদ্দিনের ছেলে। তার স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

জামানের ভাই জাকির হোসেন বলেন, গত শুক্রবার সকালে অটোরিকশা কেনেন জামান হোসেন। কিন্তু সরকারি নির্দেশনা থাকায় বাসা থেকে বের হননি জামান। রোববার (২৯ মার্চ) সন্ধ্যায় গাড়ি নিয়ে বের হওয়ার পরই নিখোঁজ হন। এ ঘটনার পরদিন সোমবার সন্ধ্যায় আড়াইহাজার থানায় জিডি করি। মঙ্গলবার সকালে তার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে আমাদের খবর দেয় পুলিশ।

আড়াইহাজার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, নিহতের হাত-পা রশি দিয়ে বাঁধা ছিল। দুই চোখ উপড়ানো অবস্থায় তার মুখ স্কচটেপ দিয়ে পেঁচানো ছিল। শরীরে একাধিক লাঠির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তার অটোরিকশাটি পাওয়া যায়নি। ধারণা করা যাচ্ছে অটোরিকশা ছিনিয়ে নেয়ার পর তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

মন্তব্য