নগদের মাধ্যমে দেয়া হবে সব সামাজিক নিরাপত্তার ভাতা

প্রজন্ম ডেস্ক

সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর সব ভাতা ডাক বিভাগের ডিজিটাল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ এর মাধ্যমে দিতে চায় সরকার। এজন্য সহায়তা চেয়ে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রীদের কাছে সম্প্রতি আধা-সরকারি পত্র দিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

চিঠিতে মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার খিলেছেন, গত বছরের ২৬ মার্চ ডাক বিভাগের ডিজিটাল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। উদ্বোধনের শুরু থেকেই নগদের মাধ্যমে ক্যাশ ইন (টাকা জমা), ক্যাশ আউট (টাকা উত্তোলন), সেন্ড মানি (টাকা পাঠানো বা গ্রহণ করা), মোবাইল রিচার্জ, মার্চেন্ট পে (কেনাকাটায় বিল প্রদান করা), বিল পে (সরকারের বিভিন্ন বিল পরিশোধ), বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অর্থ সংগ্রহ ছাড়াও বিভিন্ন প্রকার সরকারি ভাতা প্রদান সম্পর্কিত সেবা দিয়ে যাচ্ছে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী আরও লিখেছেন, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় প্রদেয় ভাতাসমূহ ডাক অধিদফতরের ডিজিটাল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ এর মাধ্যমে প্রদানের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী নিম্নোক্ত অনুশাসন দিয়েছেন- ‘নগদ’ এর মাধ্যমে অর্থ প্রেরণের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হোক।

একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে- ‘ব্যাংকের কাছ থেকে ‘নগদ’ এর মাধ্যমে অর্থ প্রেরণের জন্য যা যা করণীয় তা সুনির্দিষ্ট করার পদক্ষেপ নেয়া হোক।’

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী চিঠিতে লিখেছেন, বর্তমানে ‘নগদ’ সেবা প্রদানের জন্য বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে রয়েছে ৯ হাজার ৮৮৬টি ডাকঘর, ৮ হাজার ৫০০টি ডিজিটাল ডাকঘর এবং এক লাখ ৫৬ হাজারের বেশি নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্ট। ‘নগদ’ সেবার আওতায় সহজেই দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে অর্থ প্রেরণ বা গ্রহণ করা যায়।

মোস্তাফা জব্বার লিখেছেন, ‘এ অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন এবং নির্দেশনার আলোকে আপনার মন্ত্রণালয় বা বিভাগ কর্তৃক সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় প্রদেয় ভাতা ডাক অধিদফতরের ডিজিটাল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ এর মাধ্যমে প্রদানের প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের জন্য আপনার একান্ত সহযোগিতা কামনা করছি।’

মন্তব্য