মাস্কের নামে পাকিস্তানকে ‘জাঙিয়া’ পাঠাল চীন

প্রজন্ম ডেস্ক

চীনকে সর্বাবস্থার বন্ধু মনে করে পাকিস্তান। অথচ এমন বন্ধুই কি-না আচরণ করলো শত্রুর মতো। করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়াইরত ইসলামাবাদকে সহায়তার নামে এন৯৫ মাস্কের বদলে জাঙিয়া থেকে তৈরি মাস্ক পাঠিয়েছে বেইজিং। খোদ পাকিস্তানি টেলিভিশন সাংবাদিকের ভাষায় ‘চায়না নে চুনা লাগা দিয়া’ (চীন চুনকালি মেখে দিলো)।

পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যমের বরাতে এশিয়ানেট নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রতিশ্রুতি এন৯৫ মাস্কের জন্য দেয়া হলেও তার বদলে চীনের আন্ডারগার্মেন্টে তৈরি এই মাস্ক ‘উপহার’ অস্বস্তিতে ফেলেছে পাকিস্তানকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হাসির পাত্র হয়েছে ইমরান খানের সরকার।

ডন অনলাইনের খবর অনুসারে, করোনার হানায় এমনিতেই নাস্তানাবুদ পাকিস্তান। সেখানে এখন পর্যন্ত ২ হাজার ৬৯৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে মারা গেছেন ৪০ জন।

করোনার উৎপত্তিস্থল চীন পরিস্থিতি সামাল দিয়ে ওঠায় তাদের কাছ থেকে এ ভাইরাস প্রতিরোধের সামগ্রীসহ সহায়তার আশায় চেয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু এমন দুর্দিনে বেইজিংয়ের আচরণ বেশ আহত করেছে ইসলামাবাদকে।

স্বাস্থ্য়কর্মীদের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য় সংস্থার নির্দেশিকা মেনে কাপড়ের মাস্ক চেয়েছিল পাকিস্তান। বেইজিং আশ্বাস দিয়েছিল উন্নত এন৯৫ মাস্ক দেয়ার। কিন্তু এর বদলে তারা দিলো আন্ডারগার্মেন্টে তৈরি স্পঞ্জের মাস্ক। যা দেখে চটেছে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম। একটি টেলিভিশনে ওই মাস্কের চালান নিয়ে প্রতিবেদন করার সময় রেগে গিয়ে সাংবাদিক বলেই ফেলেন, ‘চায়না নে চুনা লাগা দিয়া’।

এই মাস্কের একাধিক বাক্স সিন্ধ প্রদেশে পৌঁছানোর পর একটি হাসপাতালে পাঠানো হলে সেখানকার চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীরা তা পরতে অস্বীকার করেন। এমনকি তারা প্রতিবাদও করেন।

সংবাদমাধ্যম বলছে, এমনিতেই করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে ইমরান খানের সরকার। এর মধ্যে সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ বন্ধু রাষ্ট্রের ‘জাঙিয়া মাস্ক’ সরকারকে আরও বেকায়দায় ফেলে দিলো।

মন্তব্য