সেনাবাহিনীকে বাজার নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব দিতে লিগ্যাল নোটিশ

প্রজন্ম ডেস্ক

রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে সেনাবাহিনী দিয়ে অভিযান পরিচালনার জন্য সরকারের সংশ্লিষ্টদের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী। শনিবার (২৫ এপ্রিল) সকালে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ও টিসিবির সচিবের প্রতি ই-মেইল যোগে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. মনিরুজ্জামান লিংকন এই নোটিশ পাঠান।

দেশের বৃহত্তর জনগণের স্বার্থে পবিত্র রমজান মাসে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম স্থিতিশীল রাখতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এই নোটিশ পাঠানো হয়েছে বলে ওই আইনজীবী জানিয়েছেন

নোটিশ পাওয়ার পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে বাজারের নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন, অন্যথায় আপনাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে নোটিশে উল্লেখ রয়েছে।

নোটিশে বলা হয়েছে, করোনা পরিস্থিতিতে আমাদের দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনী মাঠ পর্যায়ে এ মহামারি প্রতিরোধে সফলভাবে কার্যক্রম গ্রহণ এবং তা সঠিকভাবে সম্পন্ন করতে সমর্থ হয়েছেন।

কর্তৃপক্ষ যেহেতু বাজার নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হয়েছে তাই দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনীকে বাজার নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব দিলে বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল থাকবে বলে বিশ্বাস করেন তিনি।

আইনজীবী মনিরুজ্জামান লিংকন বলেন, যেহেতু পবিত্র রমজান মাস শুরু হয়েছে এবং সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতর যারা নিত্যপণ্য সরবরাহ ও বিতরণ কাজের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট তারা ইতোমধ্যে ঘোষণা দিয়েছেন, সরকারের যথেষ্ট নিত্যপণ্য মজুত আছে এবং দাম বৃদ্ধির কোনো সম্ভাবনা নেই।

তিনি আরও বলেন,কতৃপক্ষের হিসেব মতে পর্যাপ্ত নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি মজুত থাকার পরও বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংবাদে জানতে পারলাম বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম অধিকাংশ ক্ষেত্রে বাড়ছে এবং সাধারণ মানুষ তাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি কিনতে হিমশিম খাচ্ছেন।এমনকি রমজানে তাদের চাহিদা অনুযায়ী পণ্য কিনে রোজা পালন করা কষ্টসাধ্য হয়ে দেখা দিয়েছে।

মনিরুজ্জামান লিংকন বলেন, করোনা দুর্যোগকালীন সব শ্রেণি-পেশার মানুষের আর্থিক দৈন্যদশার মধ্যে দিন যাপন করতে হচ্ছে। সেক্ষেত্রে তাদের প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি যতটুকু প্রয়োজন ততটুকু কিনে পরিবারের লোকজন নিয়ে পবিত্র রমজান মাসে রোজা পালন এবং দৈনন্দিন জীবনযাপন পরিচালনা করা অত্যন্ত কষ্টসাধ্য বিষয় হয়ে দেখা দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, তাই নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের পর্যাপ্ত মজুত থাকার পরও বাজারমূল্য সঠিকভাবে স্থিতিশীল না রাখতে পারাটা এবং বাজারমূল্য অস্বাভাবিক বৃদ্ধির বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে কর্তৃপক্ষের অবহেলা এবং বাজার স্থিতিশীল রাখতে ব্যর্থতা প্রকাশ পায়।

আইনজীবী বলেন, যেহেতু করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় আমাদের দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনী সফলভাবে কার্যক্রম গ্রহণ এবং তা সঠিকভাবে সম্পাদন করতে সমর্থ হয়েছেন। আর যেহেতু কর্তৃপক্ষ বাজার নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হয়েছে তাই সেনাবাহিনীকে বাজার নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব দিলে বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল থাকবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

তাই এই নোটিশ প্রাপ্তির পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানান আইনজীবী মনিরুজ্জামান লিংকন।

মন্তব্য