জনকল্যাণে সেবার ধারা অব্যাহত রাখতে আইজিপির নির্দেশ

প্রজন্ম ডেস্ক

করোনা পরিস্থিতিতে জনগণের কল্যাণে সেবার বর্তমান ধারা অব্যাহত রাখতে পুলিশ সদস্যদের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ।

বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে পুলিশের চলমান কার্যক্রম ও স্বাভাবিক আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখা প্রসঙ্গে নিয়মিত দিকনির্দেশনার অংশ হিসেবে রোববার দুপুরে পুলিশ সদর দফতর থেকে ভিডিও কনফারেন্সে সব পুলিশ ইউনিটের কমান্ডাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন এবং তাদের বিভিন্ন বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন। এসময় তিনি এ কথা বলেন।

সাধারণ মানুষের কল্যাণে পুলিশের সব সদস্যের ত্যাগ ও মানবিক কার্যক্রমের প্রশংসা করে ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, জনগণের কল্যাণে সেবার এ ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। দেশের সাধারণ জনগণ ও গুণীজনদের যে অকুণ্ঠ ভালোবাসা ও প্রশংসা পুলিশ পাচ্ছে তার প্রতি শ্রদ্ধা রেখে মানুষের কল্যাণে পুলিশ কাজ করে যাবে।

তিনি বলেন, কোনো ধরনের অনিয়ম, অপেশাদার আচরণ ও অসদুপায়কে বিন্দুমাত্র প্রশ্রয় দেয়া হবে না।

পবিত্র রমজানে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, কালোবাজারি ও মজুতদারী রোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে নির্দেশ দেন তিনি। পণ্যবাহী ট্রাক বা বাহনগুলো পণ্য পৌঁছে দিয়ে ফেরার সময় যেন কোনো পর্যায়েই হয়রানির শিকার না হয় তা নিশ্চিত করতে সবাইকে নির্দেশ দেন আইজিপি। পাশাপাশি করোনার বিস্তার রোধে লকডাউন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ নিশ্চিত করতে পুলিশের কার্যক্রমকে অব্যাহত রাখার নির্দেশ দেন তিনি।

আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের সুচিকিৎসা প্রদানের সব আয়োজন রয়েছে উল্লেখ করে পুলিশ প্রধান বলেন, রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালসহ পুলিশের অন্যান্য হাসপাতালগুলোতে করোনা সংক্রান্ত চিকিৎসা সুবিধা বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া বিভাগীয় পর্যায়েও নেয়া হয়েছে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা।

পুলিশ সদস্য ও তাদের পরিবারের পাশে বাংলাদেশ পুলিশ রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, করোনায় আক্রান্ত পুলিশের যে কোনো সদস্যের সুচিকিৎসাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে পর্যাপ্ত আয়োজন রাখা হয়েছে। দেশ ও জনগণের কল্যাণে যারা আত্মনিয়োগ করেছেন তাদের প্রতি এ দেশের মানুষেরও অকুণ্ঠ ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা রয়েছে।

দায়িত্ব পালনরত সব পুলিশ সদস্যের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ সুরক্ষা সামগ্রী সংগ্রহ করা হয়েছে এবং তা বিভিন্ন ইউনিটেও পৌঁছে দেয়া হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন আইজিপি।

মন্তব্য