নিম্ন-মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবারের পাশে ‘সেবা সমন্বয়’

প্রজন্ম ডেস্ক

করোনাভাইরাস সংক্রমণরোধে ঘরবন্দি পরিস্থিতির কারণে ভীষণ কষ্টে দিন কাটাচ্ছে নিম্ন-মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবার। তাদের অনেকের ঘরেই প্রয়োজনীয় খাবার নেই। দেশে নিম্নবিত্তদের মাঝে প্রয়োজনীয় সামগ্রী পৌঁছানোর জন্য বিভিন্ন সংগঠন কাজ করলেও নিম্ন-মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেণি যারা জীবিকা বন্ধ হওয়ায় কষ্টে দিনানিপাত করছেন তাদের কাছে প্রয়োজনীয় সামগ্রী পৌঁছানোর প্রচেষ্টা নিতান্ত কম।

এ পরিপ্রেক্ষিতে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘সেবা সমন্বয়’ নিম্ন-মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষের মাঝে সাহায্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে। ফেসবুক অথবা নির্ধারিত ফোন নম্বরে ফোন করলে এই সহযোগিতা পৌঁছানোর প্রচেষ্টা গ্রহণ করা হচ্ছে।

এ কার্যক্রমের ধারাবাহিকতায় রোববার (২৬ এপ্রিল) ঢাকার কামরাঙ্গীরচর, রায়েরবাগ, দনিয়া, শনির আখড়া, শ্যামপুর, দোলাইপাড়, সায়েদাবাদ, মানিকনগর, কাজলা, যাত্রাবাড়ী, মীর হাজিরবাগ, দয়াগঞ্জ, জুরাইন, কমলাপুর, মুগদা, মান্ডা, নন্দীপাড়া, বাড্ডা, রামপুরা, গুলশান, মগবাজার, মৌচাক, হাজারীবাগ, মিরপুর-১০, মিরপুর-১, খিলক্ষেত ও কেরানীগঞ্জ এলাকার মোট ১২৩টি মধ্যবিত্ত ও নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝে প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেয়া হয়।

প্রতি পরিবারের জন্য পাঁচ কেজি চাল, ৫০০ গ্রাম ডাল, দুই কেজি আলু, ৫০০ গ্রাম ছোলা, ৫০০ গ্রাম সয়াবিন তেল, ৫০০ গ্রাম চিড়া, ৫০০ গ্রাম খেজুর, একটি বাধাকপি ও একটি মিষ্টি কুমড়া প্রদান করা হয়। এছাড়া পরিবারে শিশু থাকলে তরল দুধ, সুজি ও চিনি সরবরাহ করা হয়।

সেবা সমন্বয়ের প্রধান সমন্বয়কারী জাহিদুল ইসলাম বলেন, সাম্প্রতিক বাস্তবতায় দেখা যাচ্ছে- বিভিন্ন ব্যক্তি ও সামষ্টিক উদ্যোগে সম্পাদিত ত্রাণ ও সহযোগিতামূলক কার্যক্রমে সমন্বয় না থাকায় অসহায় পরিবারগুলোর কেউ কেউ প্রয়োজনের বেশি পাচ্ছে কেউ বা আবার বঞ্চিত হচ্ছে।

তাই এই পরিস্থিতিতে ‘সেবা সমন্বয়’ ত্রাণ ও সহযোগিতা কার্যক্রমে যুক্ত রয়েছে এ রূপ সংগঠনের সাথে যোগাযোগ করে একটি ডাটাবেজ প্রস্তুত করেছে যার মাধ্যমে কোন কোন এলাকায় জরুরি সহযোগিতা প্রয়োজন তা নির্ণয় করা হচ্ছে।

সেই সাথে যে সকল সংগঠন ওই এলাকা বা তার আশেপাশের এলাকায় স্বেচ্ছাসেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছে তাদের তথ্য সহযোগিতার দ্বারা অবহিতকরণের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় সাহায্য সামগ্রী দুর্গত এলাকায় পৌঁছানো সম্ভব হচ্ছে বলে তিনি জানান।

মন্তব্য