এবার যশোরের এক সংবাদকর্মী করোনায় আক্রান্ত

প্রজন্ম ডেস্ক

যশোরের স্থানীয় দৈনিক লোকসমাজের এক সাব-এডিটর করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। বুধবার (২৯ এপ্রিল) তার শরীরে করোনা শনাক্ত করা হয়। এ নিয়ে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে ২৯ সংবাদকর্মীর দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে একজন মারা গেছেন। আর ছয়জন সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

রাজধানীর উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) রাতে সাংবাদিক হুমায়ুন কবীর খোকন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। সেদিন বিকেলে গুরুতর অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি শ্বাসকষ্টজনিত রোগে ভুগছিলেন। হুমায়ুন কবির খোকনের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার মুরাদ নগরে। দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া প্রথম সাংবাদিক তিনি।

এছাড়াও মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বেসরকারি টেলিভিশন এসএ টিভির গাজীপুর প্রতিনিধি।

এদিকে সোমবার বেসরকারি টেলিভিশন দীপ্ত টিভির আরও এক রিপোর্টার এবং একজন ক্যামেরাপারসন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন। এর আগে একই টিভির আরও চারজন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর অফিস লকডাউন করা হয়। বিশেষ ব্যবস্থায় চলে এর সম্প্রচার। আর সংবাদ বিভাগ বন্ধ করে দেয়া হয়। চ্যানেলটিতে মোট ছয়জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে একজন সুস্থ হয়েছেন।

ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন ছয় গণমাধ্যমকর্মী। তারা এখন বাসায় অবস্থান করছেন। সুস্থ হওয়া সংবাদকর্মীরা হলেন-ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভির একজন ক্যামেরাপারসন, যমুনা টিভির একজন রিপোর্টার, দীপ্ত টিভির একজন, যমুনা টিভির নরসিংদী প্রতিনিধি, বাংলাদেশের খবরের একজন রিপোর্টার ও দৈনিক সংগ্রামের একজন।

করোনা আক্রান্তের এ সংখ্যা বাংলাদেশের গণমাধ্যমের জন্য অশনিসংকেত বলছেন সংশ্লিষ্টরা। গণমাধ্যমকর্মীদের অভিযোগ, সাংবাদিকদের স্ব স্ব মিডিয়া হাউস থেকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী না দিয়েই অ্যাসাইনমেন্টে পাঠানো হচ্ছে। সাংবাদিকদের এমন চলাফেরা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সাংবাদিক নেতারা।

মন্তব্য