স্পেনে ৬ সপ্তাহে করোনায় সবচেয়ে কম মৃত্যু

প্রজন্ম ডেস্ক

স্পেনে করোনাভাইরাসে গত ছয় সপ্তাহের মধ্যে সবচেয়ে কম সংখ্যক মৃত্যু রেকর্ড করা হয়েছে। তবে করোনার কারণে দেশটিতে বছরের প্রথম তিন মাসে অর্থনীতিকে বড় ধাক্কা সামাল দিতে হয়েছে। করোনা প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় স্পেনকে কী পরিমাণ অর্থনৈতিক ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে এটি তারই প্রমাণ।

স্পেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ২৬৮ জন করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে। গত ২০ মার্চের পর দেশটিতে করোনায় মৃত্যুর সর্বনিম্ন রেকর্ড এটি। দেশটিতে একই সঙ্গে কমেছে আক্রান্তের সংখ্যা। বুধবার যেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ২ লাখ ১২ হাজার ৯১৭, বৃহস্পতিবার তা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ১৩ হাজার ৪৩৫ এ। অর্থাৎ ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫১৮ জন।

রয়টার্স জানিয়েছে, বছরের প্রথম চার মাসে স্পেনের অর্থনীতি বিগত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৫ দশমিক ২ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। মার্চে অধিকাংশ দোকান, বার ও রেঁস্তোরা বন্ধ থাকায় গৃহস্থালি ব্যয় কমেছে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ।

বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে স্পেন অন্যতম। দেশটিতে ২৪ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় মারা গেছে। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে মধ্যমার্চ থেকে এখানে কঠোর লকডাউন কার্যকর করা হয়।

দেশটির আয়ের সবচেয়ে বড় খাতগুলোর মধ্যে অন্যতম পর্যটন শিল্প বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সমুদ্র সৈকত ও হোটেলগুলো পর্যটক শূন্য হয়ে পড়ে। এছাড়া আবাসন ও নির্মাণ খাতে নামে বড় ধস।

মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ জুনের শেষ নাগাদ লকডাউন প্রত্যাহার করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চার স্তরের পরিকল্পনা প্রকাশ করেছেন।

মন্তব্য