১৭৭ টাকার আপেল ৮৮৫ টাকায় বিক্রি করছে ইউনিমার্ট

প্রজন্ম ডেস্ক

রাজধানীর পুরান ঢাকার বাদামতলীতে যে আপেলের কেজি বিক্রি হয় ১৭৭ টাকা, গুলশানের অভিজাত সুপারশপ ইউনিমার্টে ওই আপেল বিক্রি হচ্ছে ৮৮৫ টাকায়। মাত্র আধা ঘণ্টার দূরত্বের রাস্তায় দাম বেড়েছে ৭০৮ টাকা।

মঙ্গলবার (৫ মে) জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর বিশেষ অভিযানে এমন তথ্য বেড়িয়ে আছে। এ অভিযোগে ইউনিমার্টকে তলব করেছে অধিদফতর ।

অধিদফতরের পক্ষ থেকে অভিযান পরিচালনা করেন ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার। সঙ্গে ছিলেন উপ-পরিচালক বিকাশ চন্দ্র দাস ও সহকারী পরিচালক রোজিনা সুলতানা।

অভিযান প্রসঙ্গে মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার জাগো নিউজকে বলেন, পেঁয়াজ ও আদার পর এখন রমজান উপলক্ষে খেঁজুরসহ বিভিন্ন ফলের দাম নিয়ে নৈরাজ্য সৃষ্টি করছে ব্যবসায়ীরা। বিষয়টি তদারকি করতে আজকে রাজধানীর পুরান ঢাকার বাদামতলীর পাইকারি ফলের আড়ত ও গুলশানের ইউনিমার্টে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে গিয়ে দেখা যায়, বাদামতলীর মদিনা হিমাগারে যে আপেল ১৭৭ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে, ওই আপেল ইউনিমার্ট বিক্রি করছে কেজি ৮৮৫ টাকা। কী আশ্চর্য বিষয়! কেজিতে দামের পার্থক্য ৭০৮ টাকা। ইউনিমার্ট খেঁজুরের দামও বেশি নিচ্ছে। অর্থাৎ সরাসরি ভোক্তার পকেট কাটছে তারা।

দামের এ ফারাক সম্পর্কে জানতে চাইলে ইউনিমার্টের দায়িত্বরত ম্যানেজার জানান, আপেলসহ বিভিন্ন ফল নির্ধারিত সাপ্লাইয়ার তাদের সরবরাহ করেছে। সাপ্লাইয়ার আপেলের দাম ৭০৮ টাকা নিয়েছে। ৭০৮ টাকার আপেল তারা ৮৮৫ টাকায় বিক্রি করছে।

অতিরিক্ত দামে ফল বিক্রি করায় ব্যাখ্যা তলবের জন্য আগামী রোববার (১০ মে) ইউনিমার্ট কর্তৃপক্ষ ও সাপ্লাইয়ারকে ডাকা হয়েছে। তারা যথাযথ ব্যাখ্যা দিতে ব্যর্থ হলে আইন অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার।

মন্তব্য