মাকে হত্যার চেষ্টা : ছেলে ৫ দিনের রিমান্ডে

প্রজন্ম ডেস্ক

রাজধানীর কলাবাগানে মাকে হত্যার চেষ্টা করা খান মিল্লাত হোসেনের (২৬) বিরুদ্ধে পৃথক দুই মামলায় পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার (১৮ মে) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ দিদার হোসাইন শুনানি শেষে রিমান্ডের আদেশ দেন।

মাকে হত্যার চেষ্টার মামলায় দুই দিন এবং অস্ত্র আইনের মামলায় তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

অস্ত্র আইনের মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা কলাবাগান থানার এসআই নজরুল ইসলাম পাঁচ দিনের এবং হত্যাচেষ্টা মামলায় একই থানার এসআই বিল্লাল হোসেন পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন। তবে আসামির পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না।

রোববার গভীর রাতে রাজধানীর পান্থপথে চেকপোস্টে তল্লাশির সময় মিল্লাতকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

মারধরের ঘটনায় মা নুরুন্নাহার রুনু নিজেই কলাবাগান থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় র‌্যাব-২ এর খোরশেদ মিয়া আরেকটি মামলা করেন।

হত্যাচেষ্টার মামলার এজাহারে বলা  হয়েছে, রাজধানীর কলাবাগান থানার গ্রিনরোড এলাকায় থাকেন নুরুন্নাহার রুনু। তার স্বামী খান শাহাদাত হোসেন দুই বছর আগে মারা গেছেন। এক মেয়ে সরকারি চাকরিজীবী। ছেলে মিল্লাত হোসেন অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ালেখা করেছেন। স্কুলে পড়ার সময় অসৎ সঙ্গে মিশে মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন। মাদকের টাকার জন্য মাকে মারধর ও ঘরে ভাঙচুর করতেন। একাধিকবার তাকে মাদক নিরাময় কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু তাতেও সংশোধন হয়নি। বরং বর্তমানে তার অত্যাচারের মাত্রা বেড়েছে।

এজাহারে আরো বলা হয়, ৭ মে মধ্য রাতে মিল্লাত মাদক কেনার টাকার জন্য মাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। পরে কাঠের একটি লাঠি দিয়ে মারধর করলে নুরুন্নাহার রুনু মাথা ও কানে আঘাত পান।

মিল্লাত এর আগেও মাদকের টাকা না পেয়ে মাকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছিলেন।

মন্তব্য