ছুটি না বাড়ানো সরকারের আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত: রিজভী

প্রজন্ম ডেস্ক

করোনাভাইরাস সংক্রমণের মাঝে সাধারণ ছুটি না বাড়িয়ে সরকার সবচেয়ে বড় আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, ছুটি প্রত্যাহারের মাধ্যমে লাখ লাখ মানুষকে আক্রান্তের দিকে ঠেলে দেওয়া হলো। এটা সরকারের সবচেয়ে বড় আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত।  পরবর্তীতে হয়ত আফসোস করারও সুযোগ থাকবে না।

বৃহস্পতিবার (২৮ মে) দুপুরে নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

রিজভী বলেন, টাকার জন্যই জীবন, মানুষের জীবনের দরকার নেই-এটাই সরকারের নীতি।  মানুষকে বিপদে ফেলে দেওয়ার এই সিদ্ধান্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সতর্কতা বার্তার প্রতিও সরকারের বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন।  এই ছুটি প্রত্যাহারের জন্য করোনাভাইরাসে প্রাণহানি সব দায় সরকারকেই নিতে হবে।

এখনই উপযুক্ত সময়ই ছিলো কিছুদিনের জন্য হার্ড-লকডাউন কার্য্কর করে ব্যাপকভাবে জনগণকে টেস্টের আওতায় এনে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা।  কিন্তু সরকার সেই পথে না গিয়ে হাঁটছে মৃত্যুর মিছিল বাড়ানোর পথে, বলেন রিজভী।

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে অধিকসংখ্যক টেস্ট এবং কঠোর লকডাউনের মাধ্যমে আক্রান্ত ও মৃত্যু নিয়ন্ত্রণে আনার পর লকডাউন শিথিল করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আর বাংলাদেশে করোনা সংক্রামণ ও মৃত্যুর ভীতিকর মাত্রায় প্রতিটি মানুষ যখন আতঙ্কি-উতকণ্ঠিত তখন ছুটির নামে তথাকথিত লকডাউন প্রত্যাহার করা হলো।

মন্তব্য