মাল্টিফাংশন সানগ্লাস উদ্ভাবন করলেন বিজ্ঞানীরা

প্রজন্ম ডেস্ক

দক্ষিণ কোরিয়ার বিজ্ঞানীরা মাল্টিফাংশন সানগ্লাস উদ্ভাবন করেছেন, যা একই সাথে মানুষের স্বাস্থ্যের খবর রাখা, চোখ দিয়ে ভিডিও গেমস খেলা আর সানগ্লাসের মতোই কাজ করতে সক্ষম। সিউলের কোরিয়া ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞানীরা এই স্মার্ট সানগ্লাস উদ্ভাবন করেছেন। এটি ফিটবিট বা স্মার্ট ওয়াচের তুলনায় আরো ভালোভাবে মানুষের স্বাস্থ্যের সব ডেটা সংরক্ষণ করতে পারবে।

যেসব ডিভাইস মস্তিষ্ক ও চোখের মাধ্যমে ইলেকট্রিকাল সিগন্যাল পরিমাপ করে, সেগুলো এপিলেপ্সি অর্থাৎ মৃগীরোগ  ও স্লিপ ডিজঅর্ডার বা ঘুমের সমস্যা শনাক্ত করতে ও কম্পিউটার নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। এই ইলেকট্রনিক সিগন্যাল পেতে স্মার্ট ডিভাইস পরা মানুষের ত্বক ও ডিভাইসের সেন্সরের সব সময় যোগসূত্র রাখা একটা বড় চ্যালেঞ্জ ছিল বিজ্ঞানীদের কাছে।

কোরিয়ান গবেষকরা এই সমস্যাটা সমাধানে আরেকধাপ এগিয়েছেন। তারা সানগ্লাসে নরম এক ধরনের ইলেকট্রোড যোগ করেছেন, যা তারবিহীনভাবেই ইলেকট্রনিক সিগন্যাল মনিটর করতে পারে। এই প্রযুক্তির মাধ্যমে এক পলকেই একজন মানুষ আল্ট্রা ভায়োলেট লাইট শনাক্ত করে, মানুষের সব মুভমেন্ট ধারন করে চোখের মাধ্যমে ভিডিও গেমস খেলতে পারবে। থ্রিডি প্রিন্টারের মাধ্যমে সানগ্লাসের ফ্রেম আগে তৈরি করা হয়েছিল। পরে লেন্সের মধ্যে আল্ট্রা ভায়োলেট সংবেদনশীল জেল ইনজেক্ট করা হয়, যাতে আলো পড়লে রং পাল্টে সানগ্লাসের মতো হয়ে উঠে।

কোরিয়া ইউনিভার্সিটির মূল গবেষক সাক উন হোয়াং বলেছেন, ‘স্মার্ট সানগ্লাস, স্মার্টওয়াচের আমাদের ব্যক্তিগত ব্যবহার্য জিনিসগুলো আমাদের শরীর থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পায়। এসবের বেশিরভাগই অবশ্য ব্যায়াম বা হৃদস্পন্দন সংক্রান্ত। এক্ষেত্রে মানব শরীর এবং ওই আইটেমের মধ্যে থাকা যোগসূত্র থেকে আমরা বায়োলজিক্যাল অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেতে পারি। এই ই-গ্লাসগুলো ডিজিটাল হেলথ কেয়ার ও ভার্চুয়াল রিয়েলিটির ক্ষেত্রে ভালো ভূমিকা রাখবে।’

মন্তব্য