বাংলাদেশের বাজারে রেনো ফোর আনছে অপো

প্রজন্ম ডেস্ক

বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্মের হাতে সর্বাধুনিক উদ্ভাবন তুলে দিতে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্ট ডিভাইস ব্র্যান্ড অপো নিয়ে আসছে নতুন স্মার্টফোন রেনো ফোর। উন্নততর এআই স্মার্ট সেন্সর, চমৎকার ক্যামেরা, ট্রেন্ডি ডিজাইন ও ফাস্ট প্রসেসরে রেনো ফোর স্মার্ট ডিভাইস ব্যবহারকারীদের অভিজ্ঞতাকে আরো বাড়িয়ে তুলবে।

অপোর রেনো ফোরে আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সে অভূতপূর্ব অগ্রগতি নিয়ে এসেছে। এর ফলে ডিসপ্লে স্পর্শ না করেই শুধুমাত্র হাতের ইশারায় ফোনের বিভিন্ন ফিচার নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। এতে ব্যবহারকারীরা ফোনের বিশাল ৬.৪৩ ইঞ্চি ডিসপ্লেতে কোনো টিউটোরিয়াল দেখে রান্নার সময় বা খাওয়ার সময় হাতের ব্যবহার না করেই ফোন ব্যবহার করার এবং ফিচারের মধ্যে কাজের সুবিধা পাবেন। কার্ভড ডিজাইনের চমৎকার ডুয়েল পাঞ্চ-হোল ডিসপ্লেতে থাকছে অনন্য সেলফি ক্যামেরা। আর পেছনের ক্যামেরায় এআই কালার পোর্টেট এবং নাইট ফ্লেয়ার পোর্ট্রেট মোডে চমৎকার ডিটেইলসের নান্দনিক পোর্ট্রেট তোলা যাবে। পোর্রেং্ট তোলার সময় এ দুই মোডের ব্যবহারে মিলবে অসাধারণ ব্লার ব্যাকগ্রাউন্ড, ফলে ছবির ফোকাস সবসময় ব্যবহারকারীর ওপরই থাকবে। এছাড়া রেনো ফোরের এআই কালার ভিডিও, সেকেন্ডে ৯৬০ ফ্রেমে এআই স্লো মোশন, আল্ট্রা স্টেডি ভিডিও ৩.০ এর ব্যবহারে ভিডিও করায় পাওয়া যাবে অনন্যসাধারণ অভিজ্ঞতা।

এক হাতে সহজে ব্যবহারের জন্য রেনো ফোর এমন ডিজাইনে তৈরি করা হয়েছে যেন শক্তিশালী ব্যাটারি থাকা সত্ত্বেও ফোনের আকার খুব বড় না হয়। চমৎকার গতিতে কাজ এবং গেমিংয়ের জন্যে এ ফোনে শক্তিশালী কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭২০জি চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে। তাছাড়া, রেনো ফোরে থাকছে ৩০ ওয়াটের ভোক ফ্ল্যাশ চার্জ প্রযুক্তি, যা দিয়ে মাত্র ২০ মিনিটের ব্যাটারির ৫০ শতাংশ চার্জ করা যাবে।

অতি শীঘ্রই বাংলাদেশের বাজারে চোখ ধাঁধানো রঙে আসবে রেনো ফোর এবং এর অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে থাকছে কালার ওএস ৭.২। আপগ্রেডেড সিস্টেমে থাকছে অত্যাধুনিক পাওয়ার সেভিং মোড এবং গ্র্যাভিটি ওয়ালপেপার। অসাধারণ পারফরম্যান্স নিয়ে ট্রেন্ডি ডিজাইনের রেনো ফোর বাংলাদেশের স্মার্টফোন উৎসাহীদের আকৃষ্ট করবে।

অপোঃ

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো এর ক্রেতাদের শিল্প ও উদ্ভাবনী প্রযুক্তির মিশেলে তৈরি পণ্য সরবরাহের জন্যে একটি নিবেদিত প্রতিষ্ঠান। তারুণ্য, নতুন ট্রেন্ড/প্রবণতা সৃষ্টি আর সৌন্দর্যের প্রতীক একটি ব্র্যান্ড হিসেবে ডিজিটাল জীবনযাত্রার আরো অসাধারন অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে অপো বরাবরই তার গ্রাহকদের জন্যে নিয়ে আসে সর্বোত্তম সেবা দিতে সক্ষম ইন্টারনেট অপটিমাইজড প্রোডাক্ট। এই ব্র্যান্ডের হাত ধরেই সূচনা হয় ‘সেলফি বিউটিফিকেশন’ এর এক নতুন যুগ। স্মার্টফোন জগতে নিজেদের এক ভিন্ন ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠায় ‘অপো’ নিয়ে এসেছে ‘মোটোরাইজড রোটেটিং’ ক্যামেরা, আল্ট্রা এইচডি ফিচার, ৫এক্স ডুয়াল ক্যামেরা জুম প্রযুক্তি। ২০১৬ সালে ‘অপো’র সেলফি-বিশেষজ্ঞ খ্যাত ‘এফ’ সিরিজ বাজারে আসার পরপরই স্মার্টফোন জগতে সেলফি তোলার প্রবণতা সৃষ্টিতে অগ্রগ্রামী ভূমিকা রাখে অপো। ২০১৭ সালে আইডিসি এর র‍্যাংকিং অনুসারে অপো বিশ্বের চতুর্থ সেরা স্মার্টফোণ ব্র্যান্ড হিসেবে নির্বাচিত হয়। বর্তমানে ৪০টি দেশে ২০ কোটির অধিক গ্রাহক আর ৪,০০,০০০ এর অধিক স্টোর আর বিশ্বজুড়ে ৪টি রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের মিশেলে বিশ্বজুড়েই তরুণদেরকে স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে সর্বোৎকৃষ্ট অভিজ্ঞতা দিয়ে চলেছে অপো।

মন্তব্য