ফরিদপুরে করোনায় মৃতদের সৎকারে ‘উই কেয়ার’

প্রজন্ম ডেস্ক

নোভেল করোনা ভাইরাসের প্রার্দুভাবে মৃত্যুর ঘটনায় সৎকার করার জন্য লোকবল পাওয়া যেত না। এখন ফরিদপুর জেলা প্রশাসন ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কর্মীরা দায়িত্ব নিয়ে মৃতের সৎকার করে যাচ্ছে। বিশেষ করে যাদের লোকবল কম অথবা অন্য জেলা থেকে করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা নিতে ফরিদপুরে এসে মারা যাচ্ছেন তাদেরই সাহায্য সহযোগিতা করছেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “উই কেয়ার”। যখনই কেউ হাসপাতালে কোভিড আক্রান্ত হয়ে বা করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাচ্ছেন এবং লোকবল পাওয়া যাচ্ছে না, তখনই সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুম রেজা খবর পাঠান উই কেয়ারের কর্মীদের।

গত শুক্রবার রাতে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান মাদারীপুর জেলার বাহাদুরপুর গ্রামের মন্টু কুমার ভক্ত (৫০)। তিনি করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান। তার দুটি শিশু সন্তান রয়েছে, মেয়ে তীথি ভক্ত (৭) এবং ছেলে অনিক ভক্ত (৯)। মন্টু কুমারের ফরিদপুরের আত্মীয় বিপ্লব কির্তনীয়া মৃতের সৎকার নিয়ে আলাপ করেন ফরিদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুম রেজাকে। শনিবার সকালে মাসুম রেজাই খবর দেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন উই কেয়ারের সমন্বয়ক সঞ্জয় সাহাকে মৃতের সৎকারের জন্য। উই কেয়ারের কর্মী পরিতোষ সরকার, সঞ্জয় সাহা, সুবির সাহা, বচ্চন অধিকারী, সমীর দাস ফরিদপুর অম্বিকাপুর মহা শ্মশানের গিয়ে মৃতের সৎকার সম্পন্ন করেন।

উই কেয়ারের সমন্বয়ক সঞ্জয় সাহা বলেন, আমরা উই কেয়ার এপর্যন্ত ৯ টি সনাতনধর্মের মৃতের সৎকার করেছি। সৎকার কাজে প্রয়োজনীয় সরঞ্জামও আমরা সংগ্রহ করে সাহায্য করছি। করোনার কারণে লোকবল কম পাওয়া যাচ্ছে বিধায় আমরা উই কেয়ার এগিয়ে এসেছি, সেটা দিন হোক বা রাত এবং আমাদের সার্বক্ষণিক সাহায্য করছেন ফরিদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুম রেজা।

মন্তব্য