ইরানি ড্রোনের ভয়ে পালাল ৩ মার্কিন বিমান

প্রজন্ম ডেস্ক

নিজেদের আকাশসীমা থেকে তিন মার্কিন বিমানকে হটিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছে ইরান। যুক্তরাষ্ট্রের দু’টি পাইলটবিহীন কমব্যাট বিমান বা ড্রোন ও একটি সামরিক বিমানকে নিজেদের বিমান প্রতিরক্ষা অঞ্চলের আকাশ থেকে চলে যেতে বাধ্য করেছে ইরানের সামরিক বাহিনী।

ওই বিমানগুলো আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে ইরানের দক্ষিণাঞ্চলে চলমান নৌমহড়ার আকাশসীমায় ঢুকে পড়েছিল। ইরানের সেনাবাহিনী শুক্রবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতি প্রকাশ করে জানিয়েছে, পারস্য উপসাগরে চলমান নৌমহড়ার দ্বিতীয় দিনে শুক্রবার আকাশে অনুপ্রবেশকারী একটি মার্কিন সামরিক বিমান পি-৮ পোসেইডন, একটি এমকিউ-৯ ড্রোন ও একটি আরকিউ-৪ ড্রোনকে ইরানের নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় শনাক্ত করা হয়।

মহড়ার আকাশসীমা-এয়ার ডিফেন্স জোন বা এডিজেড-এ অনুপ্রবেশ করার বহু আগে থেকে ওই তিন বিমানের গতিবিধি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছিল ইরানের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা।

সেনাবাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এডিজেড-এর আকাশসীমায় অনুপ্রবেশ করার পর এসব মার্কিন বিমানকে সামনে অগ্রসর না হতে কয়েক দফা সতর্ক সংকেত পাঠানো হয়। কিন্তু তা না শোনার কারণে ইরান তার নিজস্ব ড্রোন ‘কাররার’কে আকাশে ওড়ায়। এ পর্যায়ে ওই ইরানি ড্রোনের তাড়া খেয়ে মার্কিন বিমানগুলো এডিজেড-এর আকাশসীমা ত্যাগ করতে বাধ্য হয়।

পারস্য উপসাগরের কৌশলগত এলাকায় বৃহস্পতিবার থেকে তিনদিনব্যাপী বিশাল নৌ মহড়া শুরু করেছে ইরানের সামরিক বাহিনী। পারস্য উপসাগরের হরমুজ প্রণালীর পূর্বাঞ্চল থেকে ভারত মহাসাগরের উত্তর এলাকা জুড়ে জুলফিকার-৯৯ নামক এ মহড়া অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ইরানি সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, গুরুত্বপূর্ণ আঞ্চলিক নৌপথের নিরাপত্তা ও আন্তর্জাতিক জাহাজের নিরাপত্তা জোরদার করার লক্ষ্য তারা এ মহড়া চালাচ্ছে।-পার্স ট্যুডে।

মন্তব্য