গালাগালি-মারধর করায় কোরবান আলীকে হত্যা

প্রজন্ম রিপোর্ট

যশোরে কোরবান আলী ওরফে পচা হত্যা মামলার প্রধান আসামি রোকন হাসান ওরফে রনিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার স্বীকারোক্তিতে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ডাব কাটার দা উদ্ধার করা হয়েছে।

আসামি রনি যশোর শহরের খোলাডাঙ্গা এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে। এর আগে আরেক আসামি রিচার্ড বিশ্বাসকে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি গ্রেফতার করা হয়। তিনি শহরের খোলাডাঙ্গা এলাকার জন বিশ্বাসের ছেলে।

বৃহস্পতিবার জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওসি সোমেন দাস এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গতকাল বুধবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বগুড়ায় অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামি রোকন হাসান রনিকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতারকৃতদের বরাত দিয়ে ওসি সোমেন জানান, রিচার্ড বিশ্বাস নামের একজনের কাছে জমি সংক্রান্ত চাঁদা দাবি করেন নিহত কোরবান আলী ও এজাহারভুক্ত আসামি পিরু। ওই চাঁদার ভাগ কোরবান আলীকে না দিলে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য সৃষ্টি হয়। এই নিয়ে ঘটনার আগের রাতে চুয়াডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে আসামি আমিরুল ও পিরুকে ভিকটিম কোরবান আলী মারধর ও গালমন্দ করেন।

তিনি আরও জানান, এর জেরে আসামিরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে গত ১০ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টার দিকে যশোর শহরের সেবাসংঘ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন। এরপর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কোরবান আলী পচা মোটরসাইকেলযোগে ঘটনাস্থলে পৌঁছলে রোকন হাসান রনি ও তার সহযোগীরা গতিরোধ করে।

কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে রনির ভাই মিরু (ডাব ব্যবসায়ী) ডাব কাটার দা দিয়ে কোরবান আলীকে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে ফেলে চলে যান। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২১ ফেব্রুয়ারি মারা যান তিনি। এই ঘটনায় ১০ ফেব্রুয়ারি কোতয়ালি থানায় মামলা হয়।

মন্তব্য