গত ২৪ ঘন্টায় করোনার ভয়াবহ রূপ দেখল ভারত, সর্বাধিক প্রাণহানি

প্রজন্ম রিপোর্ট

গত ২৪ ঘন্টায় করোনার আরও ভয়াবহ রূপ দেখল ভারত। বিগত সকল দিনের রেকর্ড ভেঙে শেষ ২৪ ঘন্টায় ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৪ হাজার ৩৪০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এ যাবৎকালে ভারতে একদিনে করোনায় এটাই সর্বোচ্চ প্রাণহানির রেকর্ড। এছাড়া দেশটিতে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে আরও ২ লক্ষ ৬৩ হাজার ৪৫ জন। যা নিয়ে ভারতে মোট আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়ালো- ২ কোটি ৫২ লাখ ২৭ হাজার ৯৭০ জনে। আর ওই সময়ে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে আরও ৪ হাজার ৩৪০ জনের। যা নিয়ে করোনায় মোট মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ লক্ষ ৭৮ হাজার ৭৫১ জনে।

ভারতে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া চরম পর্যায়ে পৌঁছাতেই লকডাউন এবং বিধিনিষেধ আরোপের পথে হাঁটতে থাকে দেশিটির অধিকাংশ রাজ্য। তারপর থেকেই কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে আসতে শুরু করে দৈনিক সংক্রমণ।

বিশ্বে করোনা পরিস্থিতি: এখন পর্যন্ত বিশ্বে করোনাভাইরাসে প্রায় ৩৪ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ১৬ কোটি ৩৭ লাখ ছাড়িয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ১৪ কোটি ৩৩ লাখের বেশি মানুষ।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, মঙ্গলবার (১৮ মে) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন আরও ১০ হাজার ৭৩৩ জন। এখন পর্যন্ত বিশ্বে মোট করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩৪ লাখ ৪ হাজার ২৭৯ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ কোটি ৪২ লাখ ৬৫ হাজার ৬৮৯ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৪ কোটি ৪১ লাখ ৭৮ হাজার ২৮২ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রের। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৩ কোটি ৩৭ লাখ ৪৭ হাজার ৪৩৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৫৩৩ জনের। আর সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৭২ লাখ ২ হাজার ৩০৯ জন।

এরপরই রয়েছে ভারত। বেশ কিছুদিন ধরে দেশটিতে দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা বিশ্বে সর্বোচ্চ। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ২ কোটি ৫২ লাখ ২৭ হাজার ৯৭০ জনের শরীরে। মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৭৮ হাজার ৭৫১ জনের। আর সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ১৫ লাখ ৯০ হাজার ৩ জন।

তৃতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল। ল্যাটিন আমেরিকার দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১ কোটি ৫৬ লাখ ৬১ হাজার ১০৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ৩৬ হাজার ৮৬২ জনের। আর সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ৪১ লাখ ৫২ হাজার ৩ জন।

তালিকার পরবর্তী অবস্থানে থাকা দেশগুলো হলো- তৃতীয় ফ্রান্স, চতুর্থ তুরস্ক, ষষ্ঠ রাশিয়া, সপ্তম যুক্তরাজ্য, অষ্টম ইতালি, নবম স্পেন এবং দশম জার্মানি।

সংক্রমণ ও মৃত্যুর তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৩৩তম। দেশে এখন পর্যন্ত ৭ লাখ ৮০ হাজার ৮৫৭ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ১২ হাজার ১৮১ জনের। সেরে উঠেছেন ৭ লাখ ২৩ হাজার ৯৪ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর তা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে। চীনে করোনায় প্রথম রোগীর মৃত্যু হয় ২০২০ সালের ৯ জানুয়ারি। ওই বছরের ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে।ন ৩৩তম।

মন্তব্য