‘আলেমরা এগিয়ে এলে সোনার বাংলা গড়তে সহজ হবে’

প্রজন্ম রিপোর্ট

আলেম সমাজ ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে এলে বাংলাদেশকে সোনার বাংলা গড়তে সহজ হবে বলে মন্তব্য করেছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান।

সোমবার (২১ জুন) সকাল ১০টায় জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলা মডেল মসজিদ মিলনায়তনে ইমামদের সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন তিনি। জামালপুর শাখা ইসলামিক ফাউন্ডেশন আয়োজিত সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ এবং সামাজিক সমস্যা নিরসনে ইমামদের করণীয় বিষয়ে এ সম্মেলন হয়।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘উলামা মাশায়েখ, মসজিদের ইমাম-খতিব ও মুয়াজ্জিনসহ সকলে মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে বিভিন্ন সামাজিক সমস্যার সমাধানে এগিয়ে আসলে বাংলাদেশকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তুলতে অনেক সহজ হবে।’

দেশের কল্যাণ ও উন্নয়নের স্বার্থে আলেমদের প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘ওলামা মাশায়েখ, খতিব ও ইমামগণ নিজেদের মধ্যকার মতপার্থক্য দূর করে মানুষের কল্যাণ এবং দেশের উন্নয়নে একসঙ্গে কাজ করলে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক, নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা, বাল্যবিয়ে, যৌতুকসহ নানা সামাজিক সমস্যা সহজে নিরসন সম্ভব হবে। এক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিষ্ঠিত ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রসমূহ দেশের প্রান্তিক পর্যায়ে উলামায়ে কেরাম, বিশেষ করে মসজিদের ইমাম-খতিবদের প্রশিক্ষণ প্রদানের ব্যবস্থা করবে। এর মাধ্যমে আলেম সমাজ দেশের উন্নয়ন কার্যক্রমের সঙ্গে আরও সরাসরিভাবে সম্পৃক্ত হবেন। তারা নিয়মিতভাবে দেশের সকল মসজিদ এবং ধর্মীয় সভা-সমাবেশ ও সেমিনার হতে সামাজিক সমস্যা বিষয়ে জনগণকে সচেতন করবেন।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইসলামের খেদমত এবং আলেম সমাজের কল্যাণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন উল্লেখ করে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ, হজ ব্যবস্থাপনার আধুনিকায়ন, মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রসারিতকরণ, ইমাম-মুয়াজ্জিন কল্যাণ ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠা, করোনা পরিস্থিতিতে ইমাম, মুয়াজ্জিনদের আর্থিক অনুদান প্রদান করেছেন।’

ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম মাজহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন-ইসলামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এস এম জামাল আব্দুন নাছের বাবুল, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার ইসলামপুর (সার্কেল) মো. সুমন মিয়া, ইসলামিক ফাউন্ডেশন জামালপুর জেলা শাখার উপ-পরিচালক মো. আব্দুর রাজ্জাক, ইসলামপুর পৌরসভার মেয়র মো. আব্দুল কাদের শেখ, ইসলামপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক আকন্দ, উপজেলা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাজেদুর রহমান, ইসলামপুর সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আইয়ুবুর রহমান চৌধুরী শাহিন, হাফেজ মাওলানা জাকিরুল হক, মাওলানা আব্দুল খালেক, মাওলানা আবুল কাশেম প্রমুখ।

মন্তব্য