ঝিনাইদহে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ‘চরমপন্থি’ নিহত

প্রজন্ম ডেস্ক  

ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে হত্যা মামলার আসামি এক ‘চরমপন্থি নেতা’ নিহত হয়েছে।

রোববার রাত ২টার দিকে উপজেলার তেঁতুলিয়া মোড় এলাকায় গোলাগুলির ওই ঘটনা ঘটে বলে হরিণাকুণ্ডু থানার ওসি মো. আসাদুজ্জামানের ভাষ্য। 

নিহত বাদশা শেখ হরিণাকুণ্ডু উপজেলার জোড়াপুকুর গ্রামের হেলাল উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ বলছে, বাদশা ছিলেন পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টির (জনযুদ্ধ) একজন আঞ্চলিক নেতা। তার বিরুদ্ধে হরিণাকুণ্ডু ও ঝিনাইদহ থানায় সাতটি হত্যাসহ নয়টি মামলা রয়েছে। 

ওসি আসাদুজ্জামান বলেন, একদল ‘চরমপন্থি’ তেঁতুলিয়া মোড় এলাকার মেহগনি বাগানে ‘গোপন বৈঠক’ করছে খবর পেয়ে পুলিশের একটি টহল দল সেখানে অভিযানে যায়।

“চরমপন্থিরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। পুলিশও তখন পাল্টা গুলি চালায়। উভয়পক্ষের মধ্যে ৮-১০ মিনিট গোলাগুলির পর চরমপন্থিরা পালিয়ে যায়। পরে সেখানে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।”

গুলিবিদ্ধ ওই ব্যক্তিকে হরিণাকুণ্ডু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে স্থানীয়রা বাদশা শেখের লাশ সনাক্ত করে বলে জানান ওসি।

তিনি বলেন, ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি শাটারগান, একটি গুলি এবং দুটি রামদা উদ্ধার করে।

মন্তব্য