বিএসএফের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত

প্রজন্ম ডেস্ক

শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে দুই বাংলাদেশি যুবক নিহত হয়েছেন।

সোমবার ভোরে সীমান্ত পিলার ১০৯২ সংলগ্ন জিরো পয়েন্টের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

সোমবার সকালে নিহত উকিল মিয়ার লাশ পানবাড়ি রাবার বাগান এলাকা থেকে এবং নিহত খোকন মিয়ার লাশ বিকাল ৩টার দিকে মারেংপাড়া এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়।

নিহত উকিল মিয়া (৩০) সিংগাবরুনা ইউনিয়নের মেঘাদল বকুলতলা গ্রামের বঙ্গ সুরুজ মিয়ার ছেলে ও নিহত খোকন মিয়া (২৫) একই ইউনিয়নের মাটিফাঁটা গ্রামের আজিজুল হক মেম্বারের ছেলে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, উকিল মিয়া ও খোকন মিয়াসহ একদল যুবক রোববার ভোর ৫টার দিকে গরুর ঘাস সংগ্রহের জন্য ভারতীয় সীমান্তের কুমারগাতি এলাকায় যান। তখন তাদের লক্ষ্য করে বিএসএফ গুলি চালায়।

এতে উকিল আহত হয়ে বাংলাদেশি সীমান্তের পানবাড়ি রাবার বাগান এলাকায় এবং খোকন মিয়া আহত হয়ে মারেংপাড়া এলাকায় এসে লুটিয়ে পড়ে মারা যান। খবর পেয়ে কর্ণঝোড়া ক্যাম্পের বিজিবির সদস্যরা ওই পৃথক দুটি স্থানে গিয়ে তাদের লাশ দেখতে পান।

পরে কর্ণঝোড়া সীমান্ত ফাঁড়ির ক্যাম্প ইনচার্জ খন্দকার আবদুল হাই ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ওই পৃথক দুটি স্থান থেকে লাশ দুটি উদ্ধার করে।

এদিকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত কর্ণঝোড়া সীমান্ত ফাঁড়ির ক্যাম্প ইনচার্জ সুবেদার খন্দকার আবদুল হাই বলেন, এই বিষয়টিকে কেন্দ্র করে সোমবার দুপুরে বিজিবি-বিএসএফের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিজিবি এই ঘটনার প্রতিবাদ জানায়।

ওই পতাকা বৈঠকে বিজিবির-৩৯ ময়মনসিংহের অধিনায়ক শহিদুর রহমান ও ২৬ বিএসএফের অধিনায়ক বিশাল রানে নেতৃত্ব দেন।

শ্রীবরদী থানার ওসি মোহাম্মদ রুহুল আমিন তালুকদার জানান, নিহত ওই দুইজনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শেরপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য