টিসিবির মাধ্যমে চামড়া কিনবে সরকার

প্রজন্ম ডেস্ক

গত কোরবানির ঈদে চামড়া নিয়ে ব্যাপক ঝামেলা পোহাতে হয়েছে সাধারণ চামড়া ব্যবসায়ীদের। এ ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত অবস্থা যাতে আর কোনো মহল সৃষ্টি করতে না পারে তার আগাম বার্তা দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

বাণিজ‌্যমন্ত্রী বলেছেন, আগামী বছর থেকে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) মাধ্যমে সরাসরি চামড়া কিনবে সরকার।

মঙ্গলবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

টিপু মুনশি বলেন, সব সময়ই চামড়ার দাম নির্ধারণ করে দেয়া হয়। এবারও ব্যবসায়ীরা বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে এসে চামড়ার দাম ঠিক করেছিলেন। কোরবানির এক দিনেই মূল চামড়াটা হয়। দুই-তিন দিনের মধ্যে সেটা কিনতে হয়। তারা (ব্যবসায়ী) কথা দিয়ে যাওয়ার পরও সে দামে চামড়া কেনেনি।

তিনি বলেন, আগের বছর কোরবানিতে গড়ে যেখানে ৮০০ থেকে ১ হাজার টাকা দরের কথা বলেছিল, সেখানে তারা ২৫০ থেকে ৩০০ টাকায় কিনেছে। এবার আরো কম দামে কিনেছে ব্যবসায়ীরা। আমাকে তাদের কথার উপর ভরসা করতে হয়েছিল। সেটা ছিল আমার জানার প্রথম জায়গা।

টিপু মুনশি বলেন, আমি একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছি। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও আমার কথা হয়েছে। আগামী বছর টিসিবির মাধ্যমে সব জেলায় চামড়া কেনা হবে, যাতে তাদের কথার পরিপ্রেক্ষিতে আমরা ঠকে না যাই।

উল্লেখ্য, সরকারের নির্ধারণ করে দেয়া দাম অনুযায়ী, ঢাকায় প্রতিটি ২০ থেকে ৩৫ বর্গফুট গরুর চামড়া লবণ দেয়ার পরে ৯০০ থেকে ১ হাজার ৭৫০ টাকায় কেনার কথা ট্যানারি মালিকদের। কিন্তু এবার ফড়িয়া বা মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ীদের দেখা মেলেনি। কোথাও কোথাও মৌসুমি ব্যবসায়ীরা ৩০০ থেকে ৫০০ টাকায় চামড়া কিনেছেন। আর রাজধানীর বাইরে দেশের অন্যান্য স্থানে চামড়া বেচা-কেনা হয়েছে আরো কম দামে। আবার কেউ কেউ চামড়ার ন্যায্য দম না পেয়ে চামড়া মাটিতেই পুঁতে ফেলেন।

মন্তব্য