পৃথিবীর যেখানে প্রাণের অস্তিত্ব নেই

প্রজন্ম ডেস্ক

পৃথিবীর চরমভাবাপন্ন স্থান-শুস্ক মরুভূমি বা হিমাঙ্কের নিচে তাপামাত্রা বিরাজমান মরু অঞ্চল কিংবা সমুদ্রে তলদেশে যেখানে থাকা ফাঁটল দিয়ে বিষাক্ত পদার্থ বের হয়, সবখানেই প্রাণের অস্তিত্ত্ব থাকা সম্ভব। তবে ইথিওপিয়ার একটি অঞ্চলে মানুষতো দূরের কথা ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র কোনো প্রাণীরও অস্তিত্ব সম্ভব নয়।

শুক্রবার জার্নাল ন্যাচার ইকোলজি অ্যান্ড ইভালুয়েশন সাময়িকীতে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গবেষণায় দেখা গেছে, ইথিওপিয়ার দালোল হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে চরমভাবাপন্ন অঞ্চল, যেখানে প্রচন্ড গরম,লবণাক্ততা ও অ্যাসিডিক আবহাওয়া বিরাজ করে। এখানকার পুকুরগুলো আগ্নেয়গিরির জ্বালামুখে ছড়িয়ে আছে।  ইথিওপিয়ার ডানাকিল ডিপ্রেসন অঞ্চলটি লবণ, বিষাক্ত গ্যাস ও ফুটন্ত পানি দিয়ে পূর্ণ। এমনকি শীতকালে এই অঞ্চলে দিনের বেলার তাপমাত্রা ১১৩ ডিগ্রি ফারেনহাইট ছাড়িয়ে যায়। এখানকার কিছু কিছু অতি অ্যাসিডিক ও লবন পুকুরে পিএইচের মাত্রা নেতিবাচক।

ফ্রান্সের ন্যাশনাল সেন্টার ফর সায়েন্টিফিক রিসার্চের জীববিজ্ঞানী পিউরিফিসেসিয়ন লোপেজ গার্সিয়া জানান, আগের নমুনাগুলোর তুলনায় নতুন করে আরো বেশি নমুনা বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে এই লবণাক্ত, গরম ও অতিঅ্যাসিড পুকুরগুলো অথবা ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ সাগরে কোনো জীবাণুরও প্রাণের অস্তিত্ব নেই।

তবে পুকুরের বাইরের চিত্র একটু ভিন্ন। এখানে মরুভূমি বা লবণ গিরিখাতে লবণ পছন্দ করে এমন কিছু উদ্ভিজ্জাণুর অস্তিত্ব রয়েছে।

মন্তব্য