দীর্ঘদিনের জঞ্জাল পরিষ্কারের প্রক্রিয়া চলছে: কাদের

প্রজন্ম ডেস্ক  

আওয়ামী লীগের দীর্ঘদিনের জঞ্জাল পরিষ্কার করার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, দীর্ঘদিনের যে জঞ্জাল, যে আগাছা-পরগাছা সেটা পরিষ্কার করার প্রক্রিয়া আমাদের অব্যাহত রয়েছে। ঢাকায় আমরা পাঁচটি সহযোগী সংগঠনের সম্মেলন করেছি। সেগুলোতে ক্লিন ইমেজের নেতৃত্ব দিয়েছি। জেলা-উপজেলা পর্যায়ে ৭০টির মতো সম্মেলন হয়েছে। সেখানেও আমরা ক্লিন ইমেজের নেতৃত্ব উপহার দিচ্ছি।

রাজধানীর কমলাপুরে বিআরটিসি বাস ডিপোতে আট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহারের বাস হস্তান্তরের সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এসব কথা বলেন। ওই আট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে সাতটি বাস দেওয়া হয়েছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের এবার যেটা পরিকল্পনা, প্রথমত প্রেসিডেন্ট-সেক্রেটারি দেওয়া। এরপর ফুল কমিটি দেওয়া হবে। সেটা আমরা যাচাই-বাছাই করে দেখবো। অভিযোগ আসলে আমরা আবারও যাচাই-বাছাই করবো। 

দলে অনুপ্রবেশকারীদের বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, দেশজুড়ে অনুপ্রবেশকারীর মধ্যে যারা বিতর্কিত ও সাম্প্রদায়িক ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ আছে- তাদের তালিকা পার্টির সভাপতি শেখ হাসিনা সব বিভাগে দায়িত্বপ্রাপ্তদের হাতে তুলে দিয়েছেন।

‘অনুপ্রবেশকারীদের মধ্যে যাদের ব্যাপারে নানা অভিযোগ রয়েছে, তা আমরা তদন্ত করে দেখবো। অভিযোগ প্রমাণিত হলে অবশ্যই তার আওয়ামী লীগে থাকার কোনো অধিকার থাকবে না।’ 

কাদের বলেন, বিএনপি এমন একটা দল, যারা সব বিষয়ে সব ক্ষেত্রেই ব্যর্থ। তারা একটা আন্দোলনও করতে পারেনি। নিজের দলের চেয়ারম্যান এতদিন জেলে, তার জন্য চোখে পড়ার মতো কোনো একটি মিছিলও তারা করতে পারেনি। 

‘ব্যর্থ হয়ে বিদেশিদের কাছে নালিশ করছে। বিএনপি একটা নালিশনির্ভর দলে পরিণত হয়েছে। আজকে বড় নেতারাই বিএনপির নেতৃত্বের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনে কর্মসূচি দিতে ব্যর্থ হয়েছে বলে অভিযোগ আনছে,’ যোগ করেন কাদের।

অপর এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, যুবলীগের নতুন চেয়ারম্যান ফজলে শামস পরশ হলেন শহীদ শেখ ফজলুল হক মনির রক্তের উত্তরাধিকার। তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শেরও উত্তরাধিকার। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় তিনি যুবলীগের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি একজন সুশিক্ষিত মানুষ। 

‘যুবলীগের উজ্জ্বল ভাবমূর্তি ফিরিয়ে আনার জন্য এরকম একজন সুশিক্ষিত ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক পরশকে চেয়ারম্যান করা হয়েছে। জেনারেল সেক্রেটারি পদে অনেক প্রার্থী ছিলেন। আমরা স্পটলেস একজনকে নির্বাচিত করেছি। তারা ইতিবাচক ভূমিকা পালন করবে। যুবলীগের সর্বোচ্চ ক্লিন ইমেজকে ফিরিয়ে আনবে। সেটাই আমরা প্রত্যাশা করছি।’

মন্তব্য