মূত্রাশয় চুষে জীবন বাঁচালেন চিকিৎসক

প্রজন্ম ডেস্ক

চিকিৎসকরা প্রায়ই ঈশ্বরের অন্য রূপ হিসেবে বিবেচিত হোন। অনেক ঘটনায় এ কথার প্রমাণ মেলে। সম্প্রতি চীন থেকে নিউ ইয়র্কগামী একটি বিমানে এমন একটি ঘটনা ঘটেছে যেখানে কথাটি যে কতটুকু সত্য তার প্রমাণ আবারও পাওয়া গেছে। প্রবীণ যাত্রীর মূত্রাশয় থেকে নল দিয়ে প্রস্রাব চুষে বের করে জীবন বাঁচিয়েছেন এক চিকিৎসক।

মিররে প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়েছে, চিনের গুয়াংঝু বিমানবন্দর থেকে মধ্যরাতে চায়না সাউদার্ন এয়ারওয়েজ ফ্লাইট সিজেড ৩০০৯ উড়ে চলেছিল নিউ ইয়র্কের উদ্দেশ্যে। বিমান মাটিতে নামতে তখনও ৬ ঘণ্টার অপেক্ষা। ঠিক সেই সময় বিমানে থাকা এক বৃদ্ধ যাত্রীর পেটে শুরু হয় যন্ত্রণা।

বিষয়টি বিমানকর্মীদের নজরে আসে। তারা ঘোষণা করেন যদি বিমানে কোনো চিকিৎসক থাকেন তাহলে তিনি যেন এগিয়ে আসেন। শোনার পর ওই বিমানেই সফররত ভাসকিউলার সার্জন জ্যাং হং এগিয়ে আসেন। পরীক্ষা করেন যন্ত্রণাকাতর ওই বৃদ্ধকে।

হং দেখেন বৃদ্ধের মূত্রথলিতে প্রায় ১ লিটার প্রস্রাব জমা হয়ে আছে। কিন্তু তা স্বাভাবিক নিয়মে বের হতে পারছে না। প্রস্রাবের পরিমাণ আরো বাড়লে মূত্রথলি ফেটে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাতে রোগীর মৃত্যু হতে পারে। 

রোগীর জীবন বাঁচাতে ডা. হং দ্রুত বিমান থেকে একটি খালি ওয়াইনের বোতল এবং ক্যাথিটার (পাইপ) জোগার করেন। এক বিমানকর্মীকে বলেন বোতলটি ধরে থাকতে। এরপর পাইপটি ওই বৃদ্ধের পুরুষাঙ্গে প্রবেশ করিয়ে পাইপের অন্যমুখ ধরে চুষতে থাকেন। এতে বৃদ্ধের মূত্রথলি থেকে ক্রমশ পাইপ দিয়ে প্রস্রাব বেরিয়ে আসতে থাকে।

এভাবে ৩৭ মিনিটে মূত্রাশয় থেকে প্রায় ৮০০ এমএল প্রস্রাব পাইপের মাধ্যমে চুষে বের করে আনেন তিনি। ফলে জীবন রক্ষা সম্ভব হয় ওই  যাত্রীর। পরে বিমানটি অবতরণের পর তাকে নিকটবর্তী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কোনো কিছুর পরোয়া না করে এভাবে মুখ দিয়ে টেনে প্রস্রাব বের করে জীবন বাঁচানোয় ডা. হংকে বাহবা জানিয়েছেন অনেকেই।

মন্তব্য