মালিকের পর রাজশাহীর চমক রাসেল

প্রজন্ম ডেস্ক

এবারের বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফটে ছিল না আন্দ্রে রাসেলের নাম। তবে বিপিএলে ঠিকই দেখা যাবে সময়ের অন্যতম সেরা টি-টোয়েন্টি তারকাকে। ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডারকে দলে নিয়েছে রাজশাহী রয়্যালস।

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফটের পর রাজশাহীর এটি দ্বিতীয় চমক। ড্রাফটের দুদিন পর পাকিস্তানের অভিজ্ঞ ক্রিকেটার শোয়েব মালিকের সঙ্গে চুক্তির কথা জানিয়েছিল দলটি।

ড্রাফটের বাইরে দুই জন বিদেশি ক্রিকেটারের সঙ্গে চুক্তির যে নিয়ম রাখা হয়েছে, রাজশাহী সেটি কাজে লাগাল দারুণভাবে।

গত বিপিএলে ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে খেলেছিলেন রাসেল। ১৫৬.৫৪ স্ট্রাইক রেটে তার ব্যাট থেকে এসেছিল ২৯৯ রান, উইকেট নিয়েছিলেন ১৪টি।

ড্রাফটে সাদামাটা দল গড়লেও মালিক ও রাসেলকে নেওয়ার পর রাজশাহী এখন যথেষ্টই সমীহ জাগানিয়া দল। দলের ম্যানেজার সাবেক ক্রিকেটার হান্নান সরকার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানালেন, পরিকল্পনা করেই এই পথে এগিয়েছেন তারা।

“ড্রাফটের আগে থেকেই ওদের সঙ্গে আমাদের আলোচনা চলছিল। মালিক কিন্তু শুরুতে ড্রাফটে ছিল, পরে আমাদের সঙ্গে কথা হয়েছে বলেই ড্রাফট থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছিল। রাসেলকে নিয়ে তো নতুন করে বলার কিছু নেই। একাই গড়ে দিতে পারে ম্যাচের ভাগ্য।”

“ওদের দুজনের সঙ্গে কথা চলছিল বলেই ড্রাফটে খুব বড় কোনো নামের দিকে ঝুঁকিনি আমরা। খেয়াল করে দেখবেন, আমরা অলরাউন্ডার বেশি নিয়েছি। ওরা দুজন ছাড়াও রবি বোপারা, মোহাম্মদ নওয়াজ আছে অলরাউন্ডার। আমাদের আফিফ, ফরহাদ রেজা, নাহিদুল আছে। আমরা কার্যকর ক্রিকেটার বেশি নিতে চেয়েছি। এখন দলের যে চেহারা, আশা করি আমরা টুর্নামেন্টে ভালো কিছু করতে পারব।”

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে রাজশাহীর কোচের দায়িত্ব পালন করবেন সাবেক ইংলিশ ব্যাটসম্যান ওয়াইজ শাহ। সহকারী কোচ হিসেবে থাকবেন বাংলাদেশের রাজিন সালেহ। বোলিং কোচ হিসেবে দেখা যেতে পারে শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তি চামিন্দা ভাসকে।

রাজশাহী রয়্যালস স্কোয়াড:

দেশি: লিটন দাস, আফিফ হোসেন, আবু জায়েদ চৌধুরি, ফরহাদ রেজা, তাইজুল ইসলাম, অলক কাপালী, কামরুল ইসলাম রাব্বি, ইরফান শুক্কুর, মিনহাজুল আবেদিন আফ্রিদি, নাহিদুল ইসলাম।

বিদেশি: আন্দ্রে রাসেল, শোয়েব মালিক, হজরতউল্লাহ জাজাই, রবি বোপারা, মোহাম্মদ নওয়াজ, মোহাম্মদ ইরফান।

মন্তব্য