সম্পর্ক নেই- সংযোগ আছে

প্রজন্ম ডেস্ক

বলিউডের প্রেম ভালোবাসা আর বিচ্ছেদ নিয়ে বড় বড় উপন্যাস হতে পারে। হতে পারেসিনেমাও। সিনেমার পাত্র পাত্রীরাই যেখানে সত্য জীবনের নায়ক বা নায়িকা- সেখানে গল্প হতেই পারে। কিন্তু সব প্রেম সফল হয় হয়না, সব সম্পর্কও টিকে থাকে না। তবুও কিন্তু কাজের খাতিরে টিকে আছে তাদের সংযোগ।

তেমনই কয়েকটি প্রাক্তন জুটি আছেন ঠিক চোখের সামনেই। বিয়েটা হয়ে যায় যায় অবস্থা! ঠিক তখনই রনবীরের মন ছুটে গেল অন্যদিকে। ‘বাচ না অ্যায় হাসিনো’ থেকে শুরু করে ‘তামাশা’ পর্যন্ত পর্দার সফল জুটি বাস্তুবে সফল হয়নি আর তারপর। এই ভাঙনের পর দীপিকা মানসিকভাবে অসুস্থও হয়ে গিয়েছিলেন বলে গুজব আছে।

তবে তিনি ফিরে এসেছেন দারুণভাবে। রনবীরের সঙ্গে কাজও করছেন বিজ্ঞাপন বা সিনেমায়। ‘ইয়ে জাওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি‘ তারই প্রমাণ। আবার রনভীর সিং’য়ের সঙ্গে ঘর বেঁধেও ফেলেছেন ইতিমধ্যে।  পাঁচ বছরের প্রেম ভেঙ্গে যাওয়ার কারণ নিয়ে কখনোই মুখ খোলেননি কেউ। অথচ এই প্রেমের সময় থেকেই কারিনা নিরামিষ-প্রেমী হয়েছেন। ফিটনেস ভালোবেসেছেন।

ভাঙনের পর দুজনে অনেক বছর এড়িয়ে চলেছেন দুজনকে। অবশেষে ‘পেশাদারিত্ব’কে গুরুত্ব দিয়ে আবার একসঙ্গে ‘উড়তা পাঞ্জাব’য়ে অভিনয়ও করেছেন। ওদিকে আবার কোনও এক সাক্ষাৎকারে শাহিদ এও বলেছেন, “সাইফ আলী খানের সঙ্গে কারিনাকে দেখলে আমার কষ্ট হয় বটে।”

প্রাক্তন প্রেমিকাদের সঙ্গে সিনেমা না করলে নায়িকা শূণ্য হওয়ার সম্ভাবনা ছিল বলিউডের এই প্রেমিক পুরুষের। প্রেম তো আর কম আসেনি জীবনে!  একারণেই হয়তো প্রেম এবং পেশা সবসময় আলাদাভাবে সমন্বয় করে চলেছেন তিনি। ক্যাটরিনা কাইফের সঙ্গে প্রেম ভেঙে গেছে সেই কবে।

এরপর ক্যাটরিনা রনবীরের প্রেমিকা হয়েছেন, শোনা যায় নীরবে তাদের বাগদানও হয়েছিল। সেই প্রেমও নেই। ক্যাটরিনারও আর প্রেমে মন নেই আজকাল। বরং ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ দিয়ে ঠিকই খানের ছবিতে ফেরত এসেছেন। যদিও গুজব আছে, ক্যাটরিনা এবং রনবীর কখনই আর ছবি করবেন না একসঙ্গে, তারপরেও বলিউডে যখন চাহিদা তৈরি হবে- তখন এই ব্রত ভাংতেও বা কতক্ষণ!

মন্তব্য