পরকীয়ায় মৃত্যু সন্দেহে ১০ মাস পর লাশ উত্তোলন

প্রজন্ম ডেস্ক

মুন্সীগঞ্জে পরকীয়ার কারণে মৃত্যু সন্দেহে ১০ মাস পর কবর থেকে লাশ উত্তোলন করা হয়েছে এক যুবকের।

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার দক্ষিণ চর মশুরা গ্রামে গলায় ফাঁস আত্মহত্যা করা যুবকের নাম নাজমুল হাসান প্রধান (২৩) । দাফনের ১০ মাস পর ময়নাতদন্তের জন্য মঙ্গলবার বিকেলে কবর থেকে তার লাশ উত্তোলন করা হয়েছে।

গত ৫ নভেম্বর মুন্সীগঞ্জ আদালতে যুবক নাজমুলের মা নাজমা বেগম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। এ মামলার ভিত্তিতে ১০ মাস পর ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে মরদেহটি উত্তোলন করা হয়। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন সহকারী কমিশনার সৈয়দা ইয়াসমিন সুলতানা।

তিনি জানান, নাজমুল গলায় ফাঁস দিয়ে মারা যাওয়ায় স্বজন-পরিবার কোনো সন্দেহ করেনি। পরে মারা যাওয়ার কিছুদিন পর নাজমুলের চাচাতো ভাইয়ের স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া প্রেম ও অন্তরঙ্গ ছবি দেখতে পান নাজমুলের মা নাজমা বেগম। ওই মেয়ের প্ররোচণায় ছেলে আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছে বলে নাজমুলের মা নাজমা বেগম ও স্বজনদের অভিযোগ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মুন্সীগঞ্জ সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রেজাউল ইসলাম বলেন, ‘নিহত নাজমুলের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনের পর প্রয়োজনিয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

মন্তব্য