প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসায় বাংলায় যা বললেন সালমান-ক্যাটরিনা

প্রজন্ম ডেস্ক

বর্ণিল আয়োজনের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত বিশেষ এই বিপিএলের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষের দিকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ।

নিজেদের দ্বৈত পারফরম্যান্স মঞ্চস্থ হওয়ার আগে, বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করে সালমান ও ক্যাটরিনা দুজনই বলেন কোটি বাঙালির প্রাণের স্লোগান, ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’। এ সময় পুরো শেরে বাংলায় আকাশ বাতাস কাঁপিয়ে রব ওঠে ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’।

আয়োজিত অনুষ্ঠানের সফলতা কামনা করেন সালমান ও ক্যাটরিনা। এছাড়াও বলিউড ভাইজান সালমান খান প্রধানমন্ত্রীরও প্রশংসা করেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসায় সালমান বলেন, ‘আমরা সবাই শেখ হাসিনাকে ভালোবাসি। তার নামই হাসিনা নয়, তিনি সত্যিই হাসিনা।

তার অমায়িক হাসি, তার চোখে মুগ্ধ আমি।’ এ সময় প্রধানমন্ত্রীকে হাস্যজ্জ্বল দেখা যায়। তিনি লজ্জায় চোখ ঢাকেন। নিজের বাবার দেয়া আদেশ সম্পর্কে সালমান বলেন, ‘আমি যখন বাবাকে বললাম বাংলাদেশে পারফর্ম করতে যাচ্ছি, তখন তিনি আমাকে একটা কথা বলেছেন।

তিনি বলেছিলেন বাংলাদেশে গেলে মঞ্চে উঠে অবশ্যই একজনকে স্মরণ করো। আর তিনি হলেন কবি কাজী নজরুল ইসলাম। আমার বাবা কাজী নজরুলের খুব ভক্ত।’ বাবার কথা রাখতেই বঙ্গবন্ধু বিপিএলের জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পারফর্ম করার পর এভাবে নিজের অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন বলিউড সুপারস্টার সালমান খান।

পরে মঞ্চে উঠে দুজনের দ্বৈত নৃত্য পারফরম্যান্সের মধ্য দিয়ে দর্শকদের মন জয় করে নেন সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ। অনুষ্ঠানের পর্দা নামে সালমান ও ক্যাটরিনার দ্বৈত নৃত্যের মাধ্যমে। দর্শকদের তুমুল করতালি ও হর্ষধ্বনির মধ্য দিয়েই মঞ্চ মাতান দুজনে।

প্রসঙ্গত, রবিবার (৮ ডিসেম্বর) বিকাল সাড়ে ৫টা থেকে মিরপুর শেরে-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হয় বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। এরপর সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে আনুষ্ঠানিকভাবে বিপিএলের উদ্বোধন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মন্তব্য