মাত্র ৬ ঘণ্টার ব্যবধানে মারা গেলেন দুই ভাই

প্রজন্ম ডেস্ক

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের প্লাস্টিক কারখানার অ’গ্নিকা’ণ্ডে মা’রা গেছেন দুই ভাই। এ ঘটনায় দ’গ্ধ হয়ে নয়জন মা’রা যান। বুধবার রাতে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের চুনকুটিয়ার হিজলতলা এলাকার প্রাইম প্লেট অ্যান্ড প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড নামের কারখানায় ভ’য়াবহ আ’গুন লাগে।

এতে ঘটনাস্থলেই একজন নি’হত ও ৩৪ জন দ’গ্ধ হন। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অ’গ্নিদ’গ্ধ আটজনের মৃ’ত্যু ঘটে।

তাদের একজন আলম আলম (৩৫)। বৃহস্পতিবার ভোর ৬টার দিকে মা’রা যান তিনি। এরপর দুপুর দেড়টার দিকে মা’রা যান তার বড় ভাই আব্দুর রাজ্জাক (৪৫)।

নি’হত আলমের স্ত্রী’ রুমা বেগম বলেন, কারখানার কাছেই তাদের বাসা। শরীরে আ’গুন লাগার পর দৌড়ে বাসায় আসেন আলম। পানি পানি বলে চি’ৎকার করছিলেন।

তিনি ও স্বজনেরা পানি দিয়ে গায়ের আ’গুন নেভান। পরে হাসপাতা’লে ভর্তি করা হয়। আলম (৩৫) ভোরের দিকে মা’রা যান। তার বড় ভাই আব্দুর রাজ্জাক (৪৫) মা’রা যান দুপুরে।

রুমা জানান, দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ চুনকুটিয়া হিজলতলার একটি বাসায় তারা যৌথভাবে থাকতেন। তাদের বাবার নাম মৃ’ত আবদুর রশিদ। চার ভাই চার বোন তারা।

চার ভাই একসঙ্গে থাকতেন। আলমের কোনো সন্তান নেই। রাজ্জাকের এক মে’য়ে। চিকিৎসকরা বলছেন, দ’গ্ধ লোকজনের মধ্যে অনেকের অবস্থাই আশ’ঙ্কাজনক।

মন্তব্য