নিজে পাত্র খুঁজে বিধবা পুত্রবধূর বিয়ে দিলেন শ্বশুর

প্রজন্ম ডেস্ক

ছেলের অকাল মৃত্যুর পরে, অল্পবয়সি পুত্রবধূ আর নাতির ভবিষ্যতের চিন্তা মাথায় ঘুরত শ্বশুরের। সম্বন্ধ করে সেই পুত্রবধূর বিয়ে দিয়ে পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুরের ডিপিএল কলোনির অজয় শাসমল বলেন, এটা আমার কর্তব্য ছিল।

ডিপিএল কলোনির বণিক মোড়ের অজয় মুদির দোকান চালান। মিনিবাসও রয়েছে। বছর সাতেক আগে তার ছোট ছেলে গৌতমের সঙ্গে পূর্ব মেদিনীপুরের ভূপতিনগরের দোবাই গ্রামের দেবশ্রী মাইতির বিয়ে হয়। তাদের একটি ছেলেও হয়। বিয়ের তিন বছরের মাথায় গৌতমের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়। ছেলেকে নিয়ে শ্বশুরবাড়িতেই থাকতেন পুত্রবধূ দেবশ্রী।

ছাপ্পান বছর বয়সী এই শ্বশুর বলেন, ‘আমার, আমার বৌয়ের বয়স হচ্ছে। তাই আমাদের পরে, দেবশ্রী আর নাতির কী হবে, সে চিন্তা হত। শেষে ঠিক করি, দেবশ্রীর বিয়ে দেব।’

উপযুক্ত পাত্রের খোঁ’জ শুরু হয়। যোগাযোগ হয় দুর্গাপুরেরই করঙ্গপাড়ার বাসিন্দা ঘুরান লায়েকের সঙ্গে। তার ছেলে সন্তোষ গাড়ি চালান। সন্তোষের সঙ্গে দেবশ্রীর বিয়ের প্রস্তাব দেন অজয়।

সন্তোষ বলেন, ‘গোটা ব্যাপারটা শুনে রাজি হয়ে যাই।দুই পক্ষের যোগাযোগ বাড়ে। বিয়েতে রাজি হন দেবশ্রীও। তিনি বলেন, ‘বাবা (অজয়) যা করবেন, আমাদের ভালোর জন্যই করবেন, এ বিশ্বাস ছিল।’

পাঁচ বছরের নাতিকে সব সময় কাছে পাবেন না, এ কথা ভেবে কিছুটা মন খারাপ অজয়বাবুর। তবে তিনি জানান, দেবশ্রীর নতুন শ্বশুরবাড়ি দূরে নয়। ইচ্ছা হলেই গিয়ে দেখে আসবেন, এটুকুই সান্ত্বনা। বিয়ে শেষে প্রৌঢ় বলেন, হাল্কা লাগছে। ওরা এ বার সুখে সংসার করুক।

মন্তব্য