আবারও ইরাকে মার্কিন বিমান হামলা, নিহত ৬

প্রজন্ম ডেস্ক

ড্রোন হামলায় ইরানের শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে হত্যার ২৪ ঘণ্টা পর ইরাকে ফের বিমান হামলা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এবার ইরান সমর্থিত ইরাকের আধাসামরিক বাহিনী হাশদ আল শাবি’র এক কমান্ডারকে লক্ষ্য করে নতুন করে হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এই হামলায় অন্তত ছয় জন নিহত হয়েছেও আরও অন্তত ৩ জন আহত হয়েছে। শনিবার দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে বাগদাদের উত্তরে ক্যাম্প তাজির কাছে এ হামলা হয় বলে ইরাকি সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন।

আধাসামরিক বাহিনী হাশদ আল শাবি পপুলার মোবিলাইজেশন ফোর্স (পিএমএফ) নামেও পরিচিত। ইরাকের সেনাবাহিনীর অধীনে থাকা বিভিন্ন মিলিশিয়া গ্রুপের জোট এটি। জোটটি ইরানের সমর্থন পেয়ে থাকে।

ইরাকের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের খবরে বলা হয়েছে, শনিবার ভোরে রাজধানী বাগদাদের উত্তরে তাজি সড়কে একটি গাড়ি বহর লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। তাজি সড়কে যুক্তরাষ্ট্রবিরোধী জোটের একটি ঘাঁটি রয়েছে। এই জোটে যুক্তরাজ্য ও ইতালির সেনা রয়েছে।

তবে পিএমএফ-এর কোন কমান্ডারকে লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়েছে তা জানানো হয়নি। এদিকে পিএমএফ-এর পক্ষ থেকে ওই বহরে কোনো সিনিয়র কমান্ডার থাকার খবর অস্বীকার করা হয়েছে।

ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের একটি বোমারু বিমান হাশদ আল শাবির বহরে আঘাত করে। এতে অনেকে হতাহত হয়।

শুক্রবার ভোরে বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মার্কিন হামলায় ইরানের কুদস ফোর্সের কমান্ডার কাসেম সোলেমানির সঙ্গে কমান্ডার আবু মাহদি আল মুহান্দিসসহ পিএমএফর ৬ জনও নিহত হয়েছিল।

তাজি ক্যাম্পের কাছে মার্কিন বিমান হামলায় হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পিএমএফ-ও। নিহতরা সবাই বাহিনীর চিকিৎসক দলের সদস্য ছিলেন, বলেছে তারা।

মন্তব্য