শাহজাদপুরে সন্তানের স্বীকৃতি দাবিতে পরকীয়া প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান

প্রজন্ম ডেস্ক

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে সন্তানসহ পরকীয়া প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছে শাহনাজ আক্তার জেসমিন (১৯) নামের এক যুবতী। সে পটুয়াখালীর ঢেউখালি ইউনিয়নের লাউকাঠি গ্রামের মোঃ ইদ্রিস হাওলাদারের কন্যা।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার বিকালে শাহজাদপুর উপজেলার নরিনা ইউনিয়নের চর-নরিনার রাজাকার পাড়ার মোঃ মনিরুল ইসলামের বাড়িতে ৩ মাস বয়সী সন্তানসহ আসে শাহনাজ । সে দাবি করে মনিরুল তার সন্তানের বাবা এবং জেসমিন তার বিয়ে করা বৌ। মনিরুল রাজাকার পাড়া গ্রামের মোঃ নজরুল ইসলাম নজিরের পুত্র।

সরেজমিনে গেলে জেসমিন জানায়, ৪ বছর পূর্বে মানিকগঞ্জের নারায়ণগাই গ্রামের শরিফুল বিশ্বাস নামের একজনের সাথে জেসমিনের বিয়ে হয়। ৩ বছর পূর্বে মনিরুল জেসমিনদের এলাকায় কাজ করতে যায়। তখনই মনিরুলের সাথে জেসমিনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। হঠাৎই সন্তানসম্ভবা হয় জেসমিন, সব জানতে পেরে স্বামী শরিফুল জেসমিনকে বাবার বাড়ি পাঠিয়ে দেন।

গত অক্টোবর মাসে স্থানীয় একটি হাসপাতালে পুত্র সন্তান প্রসব করে জেসমিন। সমাজ ও পরিবারের চাপে গত বুধবার ৩ মাসের সন্তানকে নিয়েই বাড়ি থেকে বেড়িয়ে পড়ে জেসমিন। দীর্ঘপথ অতিক্রম করে বৃহস্পতিবার মনিরুলের বাড়ি পৌছায়। জেসমিন জানান, মনিরুল ও তার পরিবার বিভিন্নরকম টালবাহানা করে আমাকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার চেষ্টা করছে। এসময় মনিরুল ইসলামকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি।

মনিরুলের পিতা মোঃ নজরুল ইসলাম নজির জানান, জেসমিন পাঁচ দিন যাবৎ আামাদের বাড়িতেই অবস্থান করছে। তার পরিবারকে জানানো হয়েছে, এই বিষয়ে আমাদের কোন সিদ্ধান্ত নেই যা করার সমাজের মানুষজন করবে।

মন্তব্য