মোদিকে ‘সিএএ-এনপিআর-এনআরসি’ বাতিল করতে বললেন মমতা

প্রজন্ম ডেস্ক

 দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর কলকাতায় প্রথম পা রেখেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। স্থানীয় সময় শনিবার (১১ জানুয়ারি) বিকেল সোয়া চারটায় তিনি কলকাতায় পৌঁছান। সেখান থেকে চপারে চড়ে রেসকোর্স হেলিপ্যাড গ্রাউন্ডে পৌঁছন নরেন্দ্র মোদি।

চপার থেকে নেমে গাড়িতে পৌঁছন রাজভবনে। সেখানে আগে থেকেই গিয়ে অপেক্ষা করছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে ১৫ মিনিটের বৈঠক করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মোদির সঙ্গে দেখা করার পরে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, কেন্দ্রীয় প্রধানমন্ত্রীকে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছি আমরা সিএএ, ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্ট্রারের (এনপিআর) এবং ন্যাশনাল রেজিস্ট্রার অব সিটিজেন্স (এনআরসি) বিরুদ্ধে। এসব বাতিল করুন। আমরা মানুষে মানুষে বৈষম্যের বিরুদ্ধে।

তিনি আরও বলেন, মোদিকে জানিয়েছি কেন্দ্রের কাছে রাজ্যের ২৮ হাজার কোটি রুপি বকেয়া আছে। বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ বাবদ সাত হাজার কোটি রুপি পাওনা আছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়, অতীতে কোনো প্রধানমন্ত্রীর সফরে কলকাতায় এমন বিক্ষোভ হয়নি। এদিন যাত্রাপথের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভের মধ্যেই অতিরিক্ত প্রশাসনিক তৎপরতায় রাজভবনে পৌঁছান মোদি। তাকে স্বাগত জানাতে আগেই পৌঁছান মমতা।

এতে আরও বলা হয়, পশ্চিমবঙ্গে মোদির আগমন উপলক্ষে গত কয়েকদিন ধরে বিক্ষোভের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছিল। বিকেল চারটার কিছু আগে ভারতের কেন্দ্রীয় প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমান নামে কলকাতা বিমানবন্দরে। তখন বাইরে ছিল বিক্ষোভের ঢল।

মন্তব্য