তিন মাস আটকে রেখে কিশোরীকে ধর্ষণ

প্রজন্ম ডেস্ক

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তিন মাস ধরে আটকে রেখে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার কবল থেকে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার দিবাগত রাতে নগরীর এক বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার এবং কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়। পরে কিশোরীকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) মোগলাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

গ্রেপ্তার শাহ আলম আহমদ মানিক (৩৬) মৌলভীবাজারের রাজনগর থানার নিজগাঁও গ্রামের মৃত আব্দুল খালিকের ছেলে। তিনি বর্তমানে সিলেট নগরীর মোগলাবাজার থানার গোটাটিকর এলাকায় জুবেল মিয়ার কলোনীতে ভাড়া বাসায় বসবাস করেন। ওই বাসা থেকে কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়।

এসএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) জেদান আল মুসা বলেন, স্ত্রী নির্যাতনের অভিযোগ পেয়ে জুবেল মিয়ার কলোনীতে অভিযান চালায়। অভিযানে নির্যাতিতা স্ত্রীর পাশাপাশি অপর এক কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়।

পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে কিশোরী জানায়, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তিন মাস আগে মানিক তাকে কলোনীতে নিয়ে আসেন। বিয়ে না করে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করছেন।

কিশোরীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে মোগলাবাজার থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

মন্তব্য