মুখ স্কচটেপে পেঁচিয়ে গৃহকর্মীকে খুনতির ছেঁকা দিলেন নার্স

প্রজন্ম ডেস্ক

নার্সের দায়িত্ব রোগীর সেবা করা হলেও এবার ঘটল ব্যতিক্রম ঘটনা। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের এক নার্সের নির্যাতনে একই বিভাগে ভর্তি হয়েছে তার বাড়ির গৃহকর্মী ১০ বছরের ছোট্ট শিশু মালা।

তুচ্ছ ঘটনার জেরে স্কচটেপ দিয়ে মুখ বন্ধ করে তাকে গরম খুনতির ছেঁকা দেন বার্ন ইউনিটের বর্তমান নার্স দিলারা। বর্তমানে তিনি পলাতক।

গতকাল শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) ভোরে গুরুতর অবস্থায় মালাকে ঢামেকে ভর্তি করা হয়। সে এখন ঢামেক বার্ন ইউনিটের তিনতলার ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।

মালার খালা সোমা জানান, ১০ জানুয়ারি শুক্রবার দিলারা বেগমের বাবা গ্রামের বাড়ি থেকে পরিবারের জন্য দুটি দেশি মুরগি নিয়ে আসেন। তারা পরিবারের সবাই একটি মুরগি রান্না করে খান। অপর মুরগি ফ্রিজে রাখা হলেও আর পাওয়া যায়নি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মেয়েটি মুরগি চুরি করেছে বা খেয়েছে এ অভিযোগে তার মুখে স্কচটেপ পেঁচিয়ে খুনতি দিয়ে ছেঁকা ও মারধর করা হয়।

ঘটনার পর দিলারা পলাতক থাকলেও তার স্বামী রাজীবকে আটক করেছে যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশ।

যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় যাত্রাবাড়ী থানায় মামলা হয়েছে। ওই নারী পলাতক থাকলেও তার স্বামীকে আটক করা হয়েছে। তবে মেয়ের ভাষ্য অনুযায়ী ওই নার্স তাকে নির্যাতন করেছে। তাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

মন্তব্য